মেইন ম্যেনু

মেয়ের ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় বাবাকে মারধর

কলকাতার হাওড়ায় দীপাবলির দিন মেয়েকে উত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় বাবাকে মারধর করেছে দুর্বৃত্তরা। দিনে দুপুরে দোকানে ঢুকে রিভলবার দেখিয়ে মারধর, ভাঙচুর, অবাধে লুঠপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্তরা এখন পলাতক। কলকাতাভিত্তিক সংবাদমাধ্যম এবিপি আনন্দ এক প্রতিবেদনে এমন তথ্যই জানিয়েছে।

প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, বুধবার সকাল ১১টায় গোলাবাড়ি থানার জেলিয়া পাড়া লেনে নিজেদের বৈদ্যুতিক আসবাবের দোকানে বসেছিলেন এক কলেজ ছাত্রী। ওই কলেজ ছাত্রীর দাবি, বাবা বাইরে থাকায় সেই সময় দোকানে বসেছিলেন তিনি। আচমকাই সেখানে আসে অশ্বিনী মিশ্র ও দীপক নামে স্থানীয় ২ যুবক। দোকানের সামনে দাঁড়িয়ে তাকে উত্যক্ত করতে শুরু করেন তারা। ঘণ্টাখানেক পরে বাবা ফিরে এলে তাকে ঘটনাটি জানান ওই ছাত্রী ।

অশ্বিনী মিশ্রর বাবাকে ডেকে নালিশ জানান ভুক্তভোগীর বাবা। কিন্তু দুপুরের ঘটনা অন্য দিকে মোড় নেয়। অভিযোগকারিণীর বাবার দাবি, দুপুর আড়াইটার দিকে দোকানে ফিরে আসার পরই সেখানে হাজির হয় ৭-৮ জনের একটি দল। রিভলবার নিয়ে সোজা দোকানে ঢুকে পড়ে তারা। বেধড়ক মারধর করা হয় তাকে। দোকানে ভাঙচুর চালানো হয়। এরপর ক্যাশ বাক্স থেকে জোর করে প্রায় ৫০ হাজার টাকা লুঠ করে পালিয়ে যায় অভিযুক্তরা।

প্রতিবেদন থেকে আরও জানা যায়, ঘটনার জেরে এলাকায় উত্তেজনা ছড়ায়। স্থানীয় ব্যবসায়ীরা ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। এরপর হামলার শিকার ব্যক্তি গোলাবাড়ি থানায় গিয়ে অশ্বিনী মিশ্র, দীপক সহ বাকি যুবকদের নামে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এদিকে গোলাবাড়ি থানার পুলিশ জানিয়েছে তারা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছেন।