মেইন ম্যেনু

মেসিকে নিয়ে জাতীয় সমস্যায় পড়েছে আর্জেন্টিনা!

ভাবতে পারেন কেবল মাত্র একজন ফুটবলারের জন্য একটি দেশ কাতর? শুধু কী একটি দেশ! বলতে হবে সারা বিশ্বই এখন মেসির অবসর ঘোষণার খবরে স্তব্ধ। জাত-ধর্ম ভুলে সবাই এখন ব্যস্ত ফুটবল বন্দনায়।

এই মুহূর্তে আর্জেন্টিনায় রাজনৈকিত কিংবা অর্থনৈতিক নয়। তবে জাতীয় সমস্যা দেখা দিয়েছে লিওনেল মেসি নামক এক ফুটবলারকে নিয়ে। সারা বিশ্বের মতো আর্জেন্টিনার মানুষের একটাই দাবি ‘ফিরে এসো মেসি, আমরা তোমাকে চাই।’ জনগনের সাথে তাল মিলিয়ে আর্জেন্টিনার প্রেসিডেন্ট মওরিসিও ম্যাক্রি অবসরের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের জন্য মেসিকে ফোন করেছেন। এমনকি তাকে প্রস্তাব দিয়েছেন, শুধু তার সঙ্গে একান্তে সাক্ষাৎ করার জন্য। আগামী শনিবার বুয়েন্স আয়ার্স অভিমুখে মার্চ করার ঘোষণা দিয়েছে মেসি ভক্তরা। তাদের একটাই দাবি, ‘সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করো মেসি। ফিরে এসো আবার।’

আর্জেন্টিনা প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রি বলেন, ‘আর্জেন্টিনায় সবচেয়ে সেরা হলেন মেসি। আমাদের উচিৎ তার যত্ন নেয়া।’ চিলির কাছে টাইব্রেকারে হারের পর হতাশ মেসি বলেন, ‘চারটি ফাইনাল খেলেছি। আপ্রাণ চেষ্টা করেছি এই একটি সাফল্য পেতে। কিন্তু এখন আর এটা আমার জন্য নয়। এ কারণে জাতীয় দলের হয়ে আর না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

লিলিয়ান ফোর্স নামে ৩৩ বছর বয়সী এক ভদ্রমহিলার কঠোর অভ্যাস, আর্জেন্টিনার খেলা শুরুর আগে টেলিভিশনের ওপর ক্যাথলিক সেইন্ট লেডি অব লুজানের একটি ছবি টানিয়ে রাখা। যাতে, খেলায় মেসিরা জিততে পারে। তিনি যখন শুনলেন- মেসি অবসর নিয়েছেন। সাথে সাথে যেন তার মাথায় আকাশ ভেঙে পড়লো। তিনিও সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, বুয়েন্স আয়ার্স অভিমুখি রোডমার্চে অংশ নেবেন এবং মেসিকে অনুরোধ জানাবেন, তার সিদ্ধান্ত পূনর্বিবেচনা করার জন্য। তিনি বলেন, ‘আমি রোডমার্চে যাবো এবং সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থণা করবো যেন মেসি আমাদের সাথেই থাকেন (অেবসর প্রত্যাহার করেন)।’