মেইন ম্যেনু

মোদির প্রশংসায় খালেদা

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ‘ধারণার চেয়েও ব্যতিক্রম’ মন্তব্য করে তার ভূয়সী প্রশংসা করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। ভারতের অন্য প্রধানমন্ত্রী থেকে তিনি আলাদা- এমন মন্তব্যও করেছেন বিএনপি নেত্রী।

বুধবার বিকেলে এক আলোচনা সভায় এমন তথ্য জানিয়েছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজ উদ্দিন আহমেদ।

মঙ্গলবার রাতে মোদির সফর নিয়ে বিএনপি নেত্রীর সঙ্গে কথা হয়েছে জানিয়ে দলের এই নেতা বলেন, ‘নেত্রীর কাছে সফর এবং মোদি সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি (খালেদা জিয়া) জানান, মোদি ধারণার চেয়েও ব্যতিক্রম। তিনি (মোদি) তৃণমূল থেকে প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন। তিনি প্রশংসার দাবিদার এবং ভারতের বিগত প্রধামন্ত্রীদের চেয়ে তিনি অনেক আলাদা।’

হাফিজ উদ্দিন এমন সময়ে এই তথ্য জানালেন, যখন মোদি-খালেদার একান্ত বৈঠক নিয়ে দেশব্যাপি আলোচনা চলছে। তিনি বলেন, ‘নরেন্দ্র মোদির প্রশংসা করে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বলেছেন, মনমোহন সিং ও সুজাতা সিংয়ের চেয়ে মোদি অনেক আলাদা ও আন্তরিক।’

জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে মুক্তিযোদ্ধা দল আয়োজিত ‘শহীদ জিয়ার আদর্শে গড়তে হবে বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে হওয়া চুক্তিগুলোতে ভারতই বেশি লাভবান হয়েছে- দাবি করে হাফিজ উদ্দিন বলেন, ‘মোদির সফরে বাংলাদেশের সঙ্গে যে ২২টি চুক্তি করা হয়েছে। সেগুলো সব ভারতের পক্ষে, বাংলাদেশের পক্ষে নয়।’ এ সময় বাংলাদেশের ন্যায্য পানি ফিরিয়ে দিতে ভারতের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

বিএনপির সরকারবিরোধী আন্দোলন ‘ফলপ্রসূ’ না হওয়ার জন্য নেতাদের সম্পদ থাকাকে দায়ী করে তিনি বলেন, প্রত্যেক নেতার নামে যদি ঢাকা শহরে ৩০ থেকে ৪০টি বাড়ি থাকে, তাহলে আন্দোলন কীভাবে সফল হবে? আন্দোলনে জন্য লড়াকু সৈনিক বেছে নেওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ইশতিয়াক আজিজ উলফাতের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন বিএনপির যুব বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, দলের নির্বাহী কমিটির সদস্য মুক্তিযোদ্ধা শাহ মুহাম্মদ আবু জাফর, মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট ফজলুর রহমান, প্রাক্তন সংসদ সদস্য রাশেদা বেগম হীরা, মুক্তিযোদ্ধা দলের সাধারণ সম্পাদক সাদেক আহমেদ খান প্রমুখ।