মেইন ম্যেনু

মোস্তাফিজের অস্ত্রোপচার বিকেলে

দিনক্ষণ ঘনিয়ে এলো। অবশেষে ১১ আগস্ট এসেই গেলো। আজ বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় বিকাল ৫টা থেকে সাড়ে ৫টায় (ইংল্যান্ডের স্থানী সময় সকাল ১১টা থেকে সাড়ে ১১টা) ডাক্তারের ছুরি-কাঁচির নিচে যাচ্ছেন বাংলাদেশের বিস্ময় পেসার মোস্তাফিজুর রহমান। লন্ডনের দক্ষিণ কিংস্টনের বুপা ক্রমওয়েল হাসপাতালে অভিজ্ঞ অর্থোপেডিক সার্জন অ্যান্ড্রু ওয়ালেসের অধীনেই হচ্ছে মোস্তাফিজের কাঁধের এ অস্ত্রোপচার।

মোস্তাফিজের অস্ত্রোপচারের সময় সঙ্গে থাকতে মঙ্গলবার রাতে ইংল্যান্ড উড়ে গেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী। আগেই তিনি জানিয়েছিলেন, ‘৪০ থেকে ৪৫ মিনিটের মধ্যে শেষ হয়ে যাবে মোস্তাফিজের অস্ত্রোপচার। তবে রিহ্যাব প্রক্রিয়াটা অনেক কঠিন হবে। তাই অস্ত্রোপচারের শুরু থেকেই এ প্রক্রিয়ায় কোনো ঝুঁকি না নিতে দেবাশীষ সর্বক্ষণ মোস্তাফিজের সঙ্গেই থাকবেন।

মোস্তাফিজের অস্ত্রোপচার সম্পর্কে দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, ‘অস্ত্রোপচার হতে খুব বেশি সময় লাগবে না। ৪০ থেকে ৪৫ মিনিটের মধ্যেই হয়ে যাবে। তবে তাকে রিহ্যাবের জন্য কমপক্ষে পাঁচ থেকে ছয় মাস মাঠের বাইরে থাকতে হবে।’

এর আগে বাংলাদেশের আরেক পেসার রুবেল হোসেনের একই ধরনের অস্ত্রোপচার হয়েছিল। সম্পূর্ণ সেরে উঠতে প্রায় নয় মাস সময় লেগেছিল তার। তবে মোস্তাফিজের ক্ষেত্রে এতো বেশি সময় লাগবে না বলে জানিয়েছেন দেবাশীষ। রিহ্যাব প্রক্রিয়া ঠিকমত চললে, ছয় মাসের মধ্যেই ফিরে আসতে পারবেন বলে আশা করছেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের এই চিকিৎসক।

অস্ত্রোপচারের পর প্রায় এক সপ্তাহ ইংল্যান্ডে থাকবেন মোস্তাফিজ। এর মধ্যে প্রথম দুদিন হাসপাতালে থাকতে হতে পারে বলে জানিয়েছেন দেবাশীষ। এরপর লন্ডনের যে বাসায় এখন থাকছেন মোস্তাফিজ, সেখানে উঠবেন তারা।

এর আগে সাসেক্সের হয়ে খেলতে এসে ইনজুরিতে পড়েন মোস্তাফিজ। চোট পাওয়ার পর ইংল্যান্ডের বিশেষজ্ঞ সার্জন টনি কোচার, লেনার্ড ফ্রাঙ্ক এবং অ্যান্ড্রু ওয়ালেসকে কাঁধের ইনজুরি দেখিয়েছিলেন তিনি। মোস্তাফিজের কাঁধের অস্ত্রোপচার করানোর জন্য বিসিবিকে পরামর্শ দিয়েছিল সবাই। তবে দ্রুত করার স্বার্থে অ্যান্ড্রু ওয়ালেসের অধীনেই হচ্ছে তার কাঁধের অস্ত্রোপচার।