মেইন ম্যেনু

মৌমাছির কারণে ইন্দোনেশিয়ায় বিমানযাত্রায় বিলম্ব

ইন্দোনেশিয়ায় একটি ‍যাত্রীবাহী বিমান মঙ্গলবার নির্দিষ্ট সময়ে ছেড়ে যেতে পোরেনি। পাক্কা চার ঘণ্টা বিলম্ব হয়েছিল। না, তেমন কোনো বড় ধরনের দুর্ঘটনার জন্য নয়। সামান্য এক মৌমাছির কারণেই এই জটিলতা তৈরি হয়েছিল। ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রীয় বিমান পরিবহন সংস্থা গারুদারর বরাত দিয়ে বুধবার এ খবর জানিয়েছে এএফপি।

বিমান পরিবহন সংস্থা গারুদা’র মুখপাত্র বেন্নি বুতারবুতার জানিয়েছেন, মঙ্গলবার সকালে সুমাত্রা থেকে জাকার্তার উদ্দেশে রওয়ানা যাওয়ার কথা ছিল বিমানটির। ৭৩৭ নং বোয়িং বিমানটিতে সবমিলিয়ে ১৫৬ জন যাত্রী ছিল। কিন্তু যাত্রা শুরু করার আগ মুহূর্তে ইঞ্জিনের কিছু সমস্যা টের পান পাইলট। পরে যন্ত্রপাতি পরীক্ষা করে দেখা যায়, বিমানের টিউবে একটি মৌমাছি ঢুকেছে। আর এ কারণেই ইঞ্জিন সমস্যা দেখা দিয়েছে। নিরাপত্তা জনিত কারণেই তখন যাত্রা বিলম্ব করার সিদ্ধান্ত নেয় গারুদা।

তবে পতঙ্গটি জীবিত না মৃত ছিল সে বিষয়ে তিনি কিছু বলেননি। পরে যন্ত্রপাতি ঠিক করার পর বিমানটি সুমাত্রা ত্যাগ করে এবং মঙ্গলবার বিকাল নাগাদ এটি নিরাপদে জাকার্তায় এসে পৌঁছায়। তবে বিমানের ইঞ্জিনে মৌমাছি প্রবেশের এটিই প্রথম ঘটনা নয়।

গত জুনে মৌমাছির কারণে উডডয়নের খানিক পরেই জরুরি অবতরণে ব্যধ্য হয়েছিল ব্রিটিশ এয়ারলাইন্স ‘ফ্লাইবে’র একটি বিমান। সম্প্রতি মালয়েশিয়ার ইউরোপগামী একটি বিমানেও একই ঘটনা ঘটেছিল।