মেইন ম্যেনু

যতই মুখ ধোও, পোকা কিলবিল করবেই! (ভিডিওসহ)

যতই মুখ ধোও, ফেসওয়াশ লাগাও, তোমার গালে কিলবিল করবেই পোকা, রুখতে পারবে না! কি, গা ঘিনঘিন করে উঠল? কিন্তু এই সত্যিটা মেনে নিতে হচ্ছেই। বিজ্ঞানীরা বলছেন, তুমি যতই মুখ পরিষ্কার করো, এই বিদ্ঘুটে পোকারা তোমার মুখ থেকে যাবেই না। এদের ৪ জোড়া পা। অল্প নড়াচড়া করতে পারে। অনেকটা উকুনের মতো। মানবসভ্যতার জন্মলগ্ন থেকেই মানুষের মুখে এই পোকাদের বসবাস।

আর তাই নামি-দামি কোম্পানির ক্রিম, ফেসওয়াশ, বার বার জল দিয়ে ধোওয়া, পার্লারে মোটা দাগের টাকা খসিয়ে কোনো লাভ নেই। মানুষের মুখে এদের বসবাস হাজার হাজার বছর ধরে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল অ্যাকাডেমি অফ সায়েন্স-এর গবেষকরা সম্প্রতি চিহ্নিত করেছে এই পোকাগুলিকে। ৪ জোড়া পায়ের এই পোকাগুলোর নিরাপদ আশ্রয় মানুষের রোমকূপে।

2015_12_20_09_23_26_RMlWZ1JtNsz4O7EF65JvRBSWI8OAzV_original

পোকাটির বৈজ্ঞানিক নাম ডেমোডেক্স ফলিকিউলারাম। বিশেষ করে ব্রন হলে এই পোকাগুলির বাড়বাড়ন্ত হয় আরো বেশি। চোখের পাতাতেও এদের দেখা যায়। গবেষণায় দেখা গেছে, পৃথিবীর বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষের মুখে ও শরীরের অন্যান্য জায়গায় নানা প্রজাতির এই পোকাগুলো রয়েছে।

বিশ্বের নানা জায়গার মানুষের মুখ থেকে প্রায় ৭০টি প্রজাতির এই পোকার নমুনা সংগ্রহ করেছেন গবেষকরা। গবেষকদলের প্রধান মাইকেল ট্রউইনের কথায়, ‘এই পোকার ৪টি বংশের সন্ধান মিলেছে এখনও। ইউরোপিয়ান, এশিয়ান, আফ্রিকান ও লাতিন আমেরিকান। যুগ যুগ ধরে মানুষের মুখে এই পোকার বসবাস। বলা যায়, মানবসভ্যতার নানা বিবর্তনের সাক্ষী এরা।’

এদের মধ্যে সবচেয়ে পুরনো প্রজাতির সন্ধান পাওয়া যায় আফ্রিকান ও এশিয়ান বংশোদ্ভূতদের মুখে।

অতএব ঘাবড়ানো বা ভয় পাওয়ার কিছু নেই। মুখে যতই ফেশিয়াল করো, পার্লারে পয়সা খসাও, এই পোকারা কিলবিল করবেই!

দেখুন চোখে কীভাবে কিলবিল করছে পোকারা :