মেইন ম্যেনু

যমজ দুই বোন, একইদিনে হলেন মা

দুই যমজ বোন বিয়াঙ্কা আর বিয়াত্রিজ একইদিনে মা হলেন। অথচ এমনটা তো হওয়ার কথাই ছিল না। চিকিৎসকরা বলেছিলেন এক। হল আর এক।

গত বছরের ৭ ডিসেম্বর কন্যাসন্তানের জন্ম দেন বিয়াঙ্কা। আর একই দিনে ছেলে হয় বিয়াত্রিজের। এমনটা অবশ্য হওয়ারই কথা ছিল না। চিকিৎসকরা আগেই সময় বেঁধে দিয়েছিলেন দু’জনের। বিয়াঙ্কা আর বিয়াত্রিজেও জানতেন একই মাসে তাদের সন্তানরা দিনের আলো দেখবে। কিন্তু যা ভাবা হয়, তা হয় না। একইদিনে দুই বোন মা হলেন। বিয়াঙ্কার মেয়ের নাম সোফিয়া। বিয়াত্রিজের ছেলে ভিক্টর হুগো। দু’জনেই সন্তানলাভ করে খুশি। আবার একই সঙ্গে বিস্মিতও। কীভাবে কয়েক ঘণ্টার এপিঠ-ওপিঠে তাঁরা মা হয়ে গেলেন, সেটাই বুঝে উঠতে পারছেন না।

চার বছর আগে জীবনসঙ্গী খুঁজে পান দুই বোন। দু’জনের প্রেমিকরা আবার দুই ভাই। ভালই চলছিল দিনগুলো। প্রেমও ক্রমে ক্রমে গাঢ় থেকে গাঢ়তর হল। বিয়াঙ্কা আর বিয়াত্রিজের জঠরে প্রাণের সঞ্চার হল। স্মৃতিরোমন্থন করে বিয়াত্রিজে বলছেন, ‘‘গত বছরের মে মাসে আমি সন্তানসম্ভবা হই। তার চার মাস আগেই বিয়াঙ্কা প্রেগনেন্ট হয়েছিল,’’

কিন্তু আল্ট্রা সাউন্ড পরীক্ষা তুলে ধরে অন্য ছবি। পরীক্ষায় বেরিয়ে আসে দু’বোনের প্রেগন্যান্সির মধ্যে ব্যবধান মাত্র এক সপ্তাহের। ডিসেম্বরের সাত তারিখ রাত ১ টা ৩৪ মিনিটে সোফিয়া ভূমিষ্ঠ হয়। আর রাত ১১ টা আট মিনিটে বিয়াত্রিজের ঘরে আসে ভিক্টর হুগো।

অবাক বিস্ময়ে বিয়াত্রিজে বলেন, ‘‘একই দিনে আমাদের যে সন্তান হবে, সেই কথা আমরা দু’বোন জানতামই না। সেপ্টেম্বরের শেষের দিকে চিকিৎসকরা আমাকে ডেট দিয়েছিলেন।’’

আর বিয়াঙ্কা বলছেন, ‘‘জানতাম একই মাসে আমরা মা হব। তা নিয়ে দু’জনই বেশ খুশি ছিলাম। একই দিনে যে দু’জনের সন্তান হবে, সেটা অবশ্য কল্পনাও করিনি।’’