মেইন ম্যেনু

যাজক লুক হত্যা চেষ্টা: ৫ ‘জেএমবি’ গ্রেপ্তার

পাবনার ঈশ্বরদীতে খ্রিস্টান পাদ্রি লুক সরকারকে হত্যাচেষ্টার ঘটনায় ‘জেএমবির এক আঞ্চলিক কমাণ্ডার’সহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করার কথা জানিয়েছে পুলিশ।

সোমবার পাবনার পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক প্রেসব্রিফিংয়ে গ্রেপ্তার পাঁচজনকে হাজির করা হয়।

এরা হলেন- রাকিবুল ইসলাম রাকিব ওরফে তাওহিদ (৩০),জিয়াউর রহমান (৩৫), শরিফুল ইসলাম তুলিব (২২), মো আলীম (৩৬) ও মোহাম্মদ আমজাদ হোসেন (৩০)।

এদের মধ্যে রাকিব নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জেএমবির আঞ্চলিক কমাণ্ডার এবং বাকিরা সদস্য বলে সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়।

পাবনার পুলিশ সুপার আলমগীর কবির পরাগ বলেন, প্রথমে রাকিবকে গ্রেপ্তার করে পরে তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী বাকিদের গ্রেপ্তার করেন তারা।

“প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা স্বীকার করেছে, দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরি ও আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করতেই তারা ধর্মযাজককে হত্যার চেষ্টা চালায়।”

গ্রেপ্তার পাঁচজনই ছাত্রজীবনে ছাত্রশিবিরের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন বলেও পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

গত ৫ অক্টোবর সকালে ঈশ্বরদীর ব্যাপ্টিস্ট মিশনের ‘ফেইথ বাইবেল চার্চ অব গড’ এর ফাদার লুক সরকার পৌর এলাকার স্কুলপাড়ায় নিজের ভাড়া বাড়িতে হামলার শিকার হন।

তিন যুবক ধর্মের বাণী শোনার নাম করে বাসায় এসে মুখ চেপে ধরে এই পাদ্রির গলায় ছুরি চালানোর চেষ্টা করে। এ সময় লুক সরকার একজনের হাতে কামড় দিয়ে চিৎকার করে উঠলে তার স্ত্রী পদ্মা সরকার ও প্রতিবেশীরা ছুটে আসেন এবং হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।

পরদিন ওবায়দুর রহমান (২২) নামে একজনকে ওই হত্যাচেষ্টার ঘটনায় আটক করে পুলিশ। ওবায়দুর ইসলামী ছাত্র শিবিরের কর্মী বলে সে সময় পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হলেও পরে বিবৃতি দিয়ে শিবিরের পক্ষ থেকে বলা হয়, ওই যুবক তাদের সংগঠনের নয়।

উল্লেখ্য, ৫ অক্টোবর স্থানীয় ফইথ বাইবেল চার্চের যাজক লুক সরকারকে হত্যা চেষ্টা করা হয়। ওইদিন সকাল ৯টার দিকে সকালে একটি মোটর সাইকেলযোগে (ঢাকা মেট্রো-ট ১১-৯০৫৪) তিন যুবক লুক সরকারের বাসায় এসে ধর্মগ্রন্থ পাঠ শোনার কথা বলেন। এ সময় তিনি তাদের অতিথিশালায় বসতে দেন। পরে তিনি পাশের ঘরে গেলে ওই তিন যুবক ভেতর থেকে দরজা বন্ধ করে গলায় ছুরিকাঘাত করে। তার চিৎকার শুনে তাৎক্ষণিক স্বজনরা ছুটে আসলে অন্য দরজা দিয়ে ওই যুবকরা সটকে পড়ে।

এ ঘটনায় ৬ অক্টোবর ১১টার দিকে ঈশ্বরদী থানায় যাজক লুক সরকার নিজেই বাদী হয়ে অজ্ঞাত তিন যুবককে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।