মেইন ম্যেনু

যার নেতৃত্বে নিজামীর ফাঁসি কার্যকর হয়েছে

মানবতাবিরোধী অপরাধে জামায়াতের আমির মতিউর রহমান নিজামীর ফাঁসি মঙ্গলবার রাতে কার্যকর করা হয়। এদিন দিবাগত রাত ১২টা ১০মিনিটে জল্লাদ তানভীর হাসান রাজুর নেতৃত্বে ফাঁসি কার্যকর করা হয়।

কারা সূত্র জানায়, কারা মসজিদের ইমাম মনির হোসেন নিজামীকে তওবা পড়িয়ে কনডেম সেল থেকে বের হতেই জল্লাদরা কনডেম সেলে ঢুকেন। জামায়াতের আমির যুদ্ধাপরাধী নিজামীকে জম টুপি পরিয়ে বের করেন। তারা নিজামীকে ফাঁসির মঞ্চে নিয়ে দাঁড় করান।

ততক্ষণে ফাঁসির মঞ্চে হাতলের কাছে প্রস্তুত প্রধান জল্লাদ রাজু। ফাঁসির মঞ্চে তোলার পরই জম টুপির ওপর ফাঁসির ম্যানিলা রশি টেনে নিজামীর গলায় পরিয়ে দেন অপর এক জল্লাদ। হাত-পা বেঁধে দেওয়া হয় তার। রাজু তা ভালো করে যাচাই করে রশির হাতলে হাত রাখেন। তার চোখ তখন জেল সুপারের হাতে থাকা রুমালের দিকে।

রাত ১২ টা ১০মিনিটে জেল সুপার হাত থেকে রুমাল মাটিতে ফেলতেই জল্লাদ রাজু ফাঁসির রশির হাতলে টান দেন। পায়ের নিচের পাটাতন সরে গিয়ে রশিতে ঝুলতে থাকে যুদ্ধাপরাধী নিজামী। নির্ধারিত সময় পর নামিয়ে আনা হয় তার মরদেহ। এরপর মরদেহে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা করেন সিভিল সার্জন।