মেইন ম্যেনু

‘যুক্তরাজ্যে মাদক বেচে আইএস’

তেল চোরাচালান, মুক্তিপণ আদায় এবং লুটতরাজসহ বিভিন্ন অবৈধ কাজের মাধ্যমে এর আগে নিজেদের জন্য অর্থ সংগ্রহ করলেও জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস) নিজেদের খরচ জোগাতে এবার মাদক ব্যবসায়ে নেমেছে।

এ কাজে তুরস্ক তাদের সহায়তা করছে বলে অভিযোগ করেছে রাশিয়া। রাশিয়ার মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের প্রধান ভিক্তর ইভানোভ এক অনুসন্ধান শেষে দাবি করেন, তার কাছে প্রমাণ আছে, আইএসের এসব মাদক তুরস্কের পরীক্ষাগারগুলোতে পরিশোধন শেষে যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন এলাকায় বিক্রি করা হয়।

আইএস এই অবৈধ ব্যবসাটির মাধ্যমে লাখ লাখ ডলার আয় করছে বলেও জানান তিনি। তিনি বলেন, ইউরোপ হয়ে আফগানিস্তান থেকে হিরোইন আনে আইএস এবং তা বিক্রি করে যুক্তরাজ্য ও রাশিয়াতে।

জঙ্গি গোষ্ঠিটির মাদকদ্রব্য পরিবহনের বর্ণনা দিয়ে ইভানোভ বলেন, ‘মাদকের চালান আফগানিস্তানের বাদাখশান থেকে দোশি, বামিয়ান এবং হেরাত হয়ে তুরস্কে পৌঁছে। এরপর আফিমগুলো সেখানে প্রক্রিয়াজাত শেষে উন্নত মানের হিরোইনে রূপান্তর করা হয়। তারপর তা পাঠানো হয় ইউরোপ ও রাশিয়ায়।’

তিনি আরও বলেন, ‘তাদের এই তৎপরতার কারণে মধ্যপ্রাচ্যে দিন দিন মাদক চোরাচালান বেড়ে যাচ্ছে।’

ক্রেমলিনের সঙ্গে দীর্ঘ দিনের বাকযুদ্ধে সর্বশেষ তুরস্কের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ করলো রাশিয়া। চলতি বছর ২৪ নভেম্বরের তুরস্ক গুলি করে রাশিয়ার একটি ফাইটার জেট বিমান ভূপাতিত করলে দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা বৃদ্ধি পায়।

তুরস্কের দাবি, বিমানটি তাদের আকাশসীমার মধ্যে ঢুকে পড়েছিল। অপরদিকে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন দাবি করেছেন, তাদের বিমানটি সিরিয়ার আকাশসীমায় ছিল। ন্যাটোর উসকানিতেই এই ঘটনাটি ঘটেছে।