মেইন ম্যেনু

যুক্তরাষ্ট্রের ২ লাখ ভোটারের তথ্য ফাঁস করেছে হ্যাকার!

যুক্তরাষ্ট্রের একটি ছোট শহরের নাম আইওয়া। এ অঞ্চলের মানুষদের আইওয়ান বলা হয়। সম্প্রতি দ্য ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের একটি প্রতিবেদনে জানা গেছে, ভোটারদের তথ্যসমৃদ্ধ একটি ওয়েবসাইট থেকে আইওয়া রিপাবলিকান পার্টির দুই লাখ ভোটারের তথ্য ফাঁস হয়েছে। এই ডাটাবেইসটি ভোটারদের তথ্য সংগ্রহ ও সংরক্ষণ করতো। ভোটাররা নিজেরাই এই ওয়েবসাইটে নিবন্ধন করতে পারতেন এবং নিকটতম রাজনৈতিক দলের তথ্যও জানতে পারতেন। দুর্ভাগ্যবশত নিরাপত্তা ব্যবস্থা দুর্বল থাকার কারণে ওয়েবসাইটের সোর্স কোড দিয়ে একটি মৌলিক স্ক্যানের মাধ্যমে ডাটাবেইসে প্রবেশ করা যেতো।

জার্নালে প্রকাশিত প্রতিবেদনটি জানার পর ওয়েবসাইট কর্তৃপক্ষ ঘটনাটি খতিয়ে দেখছে। তবে এটি এখনও অস্বচ্ছ যে, কেউ এই ওয়েবসাইটের ডাটাবেইসে প্রবেশ অথবা ডাউনলোড করেছে কি না! তবে এখন পর্যন্ত সাইটটির নিরাপত্তা ব্যবস্থা গুরুত্বপূর্ণ সাইটের নিরাপত্তা প্রদানে অপ্রতুল।

ভোটারদের রেকর্ড সংবেদনশীল তথ্য সব ভোটারদের জন্য।যদিও এই ডাটাবেইসে শুধুমাত্র ভোটারদের নাম, যোগাযোগের তথ্য এবং গত নির্বাচনে সে কোন দলকে ভোট দিয়েছিল তা সংরক্ষিত থাকে।

কোন ভোটার কোন দলে নিবন্ধিত হবেন তার অপশনও রয়েছে এই ডাটাবেইসে। তবে প্রত্যেকের ব্যক্তিগত ভোট গোপনীয়। স্টেট এজেন্সি থেকে যে কেউ এই ডাটা কিনতে পারেন যদিও এই ডাটা ব্যবহারের ওপর রয়েছে বিধি বিধান। উম্মুক্ত তথ্য ব্যবস্থা বৃদ্ধির সাথে সাথে যদি এর নিরাপত্তা জোড়দার করা না হয় তাহলে যে কোন সময় তথ্যগুলো অরক্ষিত হয়ে যেতে পারে। এর আগে জর্জিয়াতে এবং একটি ডার্ক ওয়েব ডাটাবেইস ১৯০ মিলিয়ন যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারীদের তথ্য প্রদর্শন করেছিল।



« (পূর্বের সংবাদ)