মেইন ম্যেনু

যুক্তরাষ্ট্রে ইনজেকশনে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর

যুক্তরাষ্ট্রে বিতর্কিত প্রাণঘাতী ইনজেকশনের পক্ষে সুপ্রিম কোর্ট রুল দেওয়ার পর প্রথমবারের মতো এই পদ্ধতি ব্যবহার করে এক আসামির মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। মঙ্গলবার মিজৌরি অঙ্গরাজ্যে প্রাণঘাতী ইনজেকশনে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয় বলে বার্তা সংস্থা বাংলা প্রেস জানিয়েছে।

মিজৌরির কারা মুখপাত্র মাইক ও’কনেল বলেন, স্থানীয় সময় রাত পৌনে নয়টার দিকে ইনজেকশন দিয়ে ডেভিড জিংক নামের ওই মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে।
এক তরুণীকে ধর্ষণ ও হত্যার দায়ে ৫৫ বছর বয়সী জিংককে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছিল । ২০০১ সালে এক গাড়ি দুর্ঘটনার পর ওই তরুণীকে অপহরণ করেছিলেন জিংক। মৃত্যুদণ্ড বাতিল করতে আপিল করেছিলেন তিনি। কিন্তু তার ওই আবেদন আদালতে বাতিল হয়ে যায়।

প্রাণঘাতী ইনজেকশনের বিকল্প কিছু না পাওয়ায় গত জুনে এই ইনজেকশন ব্যবহারে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার রুল দেন মিজৌরি আদালত ।

সুপ্রিম কোর্টের রুলের পর এই প্রথম ওই বিতর্কিত প্রাণঘাতী ইনজেকশন ব্যবহার করে কোনো আসামির মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হলো। এই ইনজেকশন ব্যবহারের বিষয়ে প্রবল আপত্তির কারণ এর অসহ্য যন্ত্রণা। কিন্তু এ অভিযোগের বিষয়ে আদালতে কেউ কোনো অকাট্য প্রমাণ দিতে পারেনি।