মেইন ম্যেনু

যুক্তরাষ্ট্রে বন্ধ হয়েছে তুষারঝড়, নিহত ২৪

টানা দুদিন পর রোববার যুক্তরাষ্ট্রের পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোতে তুষারপাত বন্ধ হয়েছে। স্থানীয়রা জমাট বরফের স্তূপ খুঁড়ে তাদের গাড়ি উদ্ধার করার চেষ্টা করছেন এবং বাড়ির পথ পরিষ্কার করছেন। তবে ওয়াশিংটনে এখনো তুষারপাত অব্যাহত আছে। এই দুদিনে তুষারঝড়ে সব মিলিয়ে ২৪ জন নিহত হয়েছেন।

শুক্রবার থেকে ‘স্নোজিলা’ নামের তুষারঝড় পূর্বাঞ্চলীয় ২০টি রাজ্যে আঘাত হানে। এই ঝড়ের কারণে প্রভাবিত হয়েছে প্রায় সাড়ে ৮ কোটি লোক। ওয়াশিংটন, নিউইয়র্কসহ বেশ কয়েকটি রাজ্যে ২৬ ইঞ্চি পর্যন্ত পুরু তুষার জমেছে। গোটা শনিবার তুষারঝড়ের জন্য রাস্তাঘাটগুলো ছিল জনশূন্য । কর্তৃপক্ষ মহাসড়কসহ বহু রাস্তা বন্ধ ঘোষণা করেছে। রোববার সকাল থেকে তুষারপাত বন্ধ হতে শুরু করে। সূর্যের আলোর দেখা মেলায় লোকজন রাস্তায় বের হয়ে বরফ খুঁড়ে তাদের গাড়ি উদ্ধার শুরু করে। অনেককে বাড়ির সামনের রাস্তার বরফ পরিষ্কার করতে দেখা গেছে।

জাতীয় আবহাওয়া পরিষেবা বিভাগ জানাচ্ছে যে নিউইয়র্ক সিটির সেন্ট্রাল পার্কে ২৬ দশমিক ৮ ইঞ্চি তুষারপাত হয়েছে। কর্তৃপক্ষ অবশ্য রোববার সকাল বেলা থেকে যান চলাচলের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়। তবে এরপরও সতর্কতা হিসেবে নিতান্ত প্রয়োজন না হলে ঘর থেকে নাগরিকদের বের না হওয়ার অনুরোধ জানানো হয়েছে। মেয়র বিল ডি ব্লাসিও সংবাদ সম্মেলনে গাড়ি চালানোর সময় নাগরিকদের অতিরিক্ত সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন।

আরকানসাস, দিলাওয়ার, কেনটাকি, মেরিল্যান্ড, নিউইয়র্ক, নর্থ ক্যারোলিনা, ওহিও, সাউথ ক্যারোলিনা, ভার্জিনিয়া এবং ডিস্ট্রিক্ট অব কলম্বিয়ায় সব মিলিয়ে ২৪ জন মারা গেছে তুষারঝড়ে।

এদিকে অন্যান্য রাজ্যে ঝড় থেমে গেলেও ওয়াশিংটনে এখনো তুষারপাত বন্ধ হয়নি। সোম ও মঙ্গলবার রাজ্যের স্কুলগুলো বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। জরুরি অবস্থা এখনো জারি রাখা হয়েছে। ওয়াশিংটনের মেয়র মুরিয়েল বাউসার জানিয়েছেন, রোববার পরিস্থিতি বেশ উন্নত হয়েছে। আরো ২৪ ঘণ্টা নাগরিকদের বাড়ির ভেতরে অবস্থানের পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।