মেইন ম্যেনু

যুক্তরাষ্ট্রে ৮৫ হাজার ওয়ার্ক ভিসা

যুক্তরাষ্ট্রে ৮৫ হাজার ওয়ার্ক ভিসা দেয়া শুরু হবে ১ এপ্রিল থেকে। বাংলাদেশীরাও সুযোগ নিতে পারেন। যুক্তরাষ্ট্রে সরকারি ও বেসরকারি খাতের উচ্চ প্রযুক্তিসম্পন্ন স্থাপনা প্রতিষ্ঠানগুলো প্রতি বছর বিদেশী বিজ্ঞানী, প্রযুক্তিবিদ, কম্পিউটার সায়েন্সে ডিগ্রিধারী ও প্রকৌশলীদের নিয়োগ করা হয়। বাংলাদেশীরাও সে সুযোগ নিতে পারেন।

আগামী ১ এপ্রিল থেকে এই ক্যাটাগরিতে নিয়োগপ্রাপ্তদের এইচ-১ বি ভিসার আবেদন গ্রহণ ও ভিসা প্রদান শুরু হবে।
সাধারণভাবে “ওয়ার্ক ভিসা” হিসেবে পরিচিত এ ভিসায় প্রতি বছর ৬৫ হাজার বিদেশী বিজ্ঞানী, প্রযুক্তিবিদ ও বিভিন্ন ডিসিপ্লিনের প্রকৌশলীদের আমেরিকান কোম্পানীগুলো নিয়োগ দিতে পারে। নিয়োগপ্রাপ্তরাই এইচ-১বি ভিসার জন্য সংশ্লিষ্ট দেশে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসে ভিসার আবেদন করতে পারেন। ২০১৬ অর্থ বছরে এই বিদেশী ডিগ্রীধারীদের ৬৫ হাজার এইচ-১ বি ভিসা দেয়া হবে। যুক্তরাষ্ট্রের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো থেকে যেসব বিদেশী ছাত্র মাস্টার্স ডিগ্রি করেছেন অথবা এর চেয়ে উচ্চতর ডিগ্রির অধিকারী তাদের জন্য ২০ হাজার অতিরিক্ত এইচ-১ বি ভিসা রয়েছে।পূর্ববর্তী বছরগুলোর অভিজ্ঞতায় দেখা গেছে, সংরক্ষিত মোট ৮৫ হাজার এইচ-১বি ভিসার আবেদন গ্রহণ ও ভিসা ইস্যুপ্রক্রিয়া ১ এপ্রিল থেকে শুরু হলেও শুরুর প্রথম কয়েকদিন বা সর্বোচ্চ এক সপ্তাহের মধ্যে ভিসার কোটাগুলো পূর্ণ হয়ে যায়। এ বছরও এর ব্যতিক্রম হবেনা বলে ইমিগ্রেশন বিষয়ক পরামর্শকেরা মনে করছেন। কারণ বর্তমানে বিশ্বজুড়ে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ে উচ্চ ডিগ্রিধারীর সংখ্যা বেড়ে চলেছে এবং সে জন্য এইচ-১ বি ভিসার জন্য প্রতিযোগিতাও অত্যন্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হয়ে পড়েছে। এইচ-১বি ভিসার আবেদনকারীর সংখ্যা এখন বার্ষিক ৬৫ হাজারের চেয়ে বেশি হয় বলে ভিসা প্রদানে লটারির ব্যবস্থা করা হয়। যার ফলে অনেক যোগ্য ভিসাপ্রার্থীও ভিসা লাভ থেকে বঞ্চিত হন।

বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে উচ্চতর ডিগ্রিধারী যারা বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমন করছেন তাদের মধ্যে যাদের সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে যোগ্যতা রয়েছে এবং তারা কোনো নিয়োগকারী দ্বারা নিয়োগ লাভ করেছেন বা ১ এপ্রিলের আগে নিয়োগ লাভ করতে সক্ষম তারাও নিয়োগকারীর মাধ্যমে তাদের ভ্রমন ভিসার মেয়াদ থাকলে এইচ-১বি ভিসার জন্য আবেদন করতে পারেন। এইচ-১বি ভিসার জন্য আবেদন ফি ১৫৭০ থেকে ২৩২০ ডলার পর্যন্ত হতে পারে।

যুক্তরাষ্ট্রের ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ এইচ-১বি ভিসা ইস্যু করে তিন বছরের জন্য। নিয়োগকারী এইচ-১বি ভিসাধারীর চাকরির মেয়াদ বৃদ্ধি করলে পরে চার বছরের জন্য নবায়ন করা যায়।