মেইন ম্যেনু

যুবককে ডাইনিবিদ্যায় বশ করায়, ৪ নারীকে উলঙ্গ করে পুড়িয়ে হত্যা! [ভিডিও]

গ্রামে এক যুবক হঠাৎই অসুস্থ হয়ে পড়েছে। গ্রামবাসীর সন্দেহ এই যুবকের অসুস্থতার জন্য দায়ী ওই গ্রামেরই চার নারী। তাদের ধারণা, ‘ডাইনিবিদ্যা’র মাধ্যমে তারাই ওই যুবকের হৃদয় গোপনে হরণ করেছেন। আর এই কুসংস্কার থেকে ওই চার নারীর উপরে চড়াও হয় গ্রামের লোকজন। টেনেহিঁচড়ে ঘর থেকে বের করে নিয়ে এসে সবার সামনে নগ্ন করা হয় তাদের। চলে মারধর। পরে পুড়িয়ে মেরে ফেলা হয়।

এই বিভৎস, নারকীয় ঘটনাটি ঘটেছে পাপুয়া নিউ গিনির এঙ্গা প্রদেশের একটি গ্রামে। গত আগস্ট মাসে চোখের সামনে বর্বর এই ঘটনা ঘটলেও মুখ খোলেনি কেউ।

সম্প্রতি মোবাইল ফোনে ধারণ করা ওই ঘটনার ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটগুলোতে। আর তারপরেই হুলস্থুল পড়েছে বিশ্বে। বেশ গুরুত্ব দিয়ে সংবাদ পরিবেশন করেছে দ্য গার্ডিয়ান, মিরর, ডেইলি মেইল, ইনডিপেনডেন্টসহ আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো।

ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, চারজন নারী বিবস্ত্র অবস্থায় মাটিতে পড়ে আছেন, হাত বাঁধা। আর তাদের ঘিরে আছেন একদল মানুষ। চলছে জেরা। প্রশ্নের মুখে অসহায় নারীরা সব অভিযোগ অস্বীকার করছেন। তাদের ছেড়ে দেয়ার কাতর আবেদন জানাচ্ছেন জনতার কাছে। একজন বলছেন, ‘ওহ, আমি ৫ সন্তানের মা। আমার ছেলে… থামো।’ কিন্তু, সেই আবেদনে কান দিচ্ছেন না কেউই। উন্মত্ত পাশবিক উল্লাসে কেউ বলছে, ‘মারো। আরো মারো’ আর কেউ বলছে, ‘মেরো না, একেবারে পুড়িয়ে ফেল তাদের।’

পার্শ্ববর্তী ভারতের প্রত্যন্ত গ্রামেও অশিক্ষা ও কুসংস্কারে ডাইনি অভিযোগে মারধর, নির্যাতন, ঘরছাড়া করা, মেরে ফেলার খবর মাঝেমধ্যেই পাওয়া যায়। এবার এই ঘটনা পাপুয়া নিউ গিনিতে। কুসংস্কারের বশবর্তী হয়ে চার নারীকে বেঁধে নগ্ন করে পুড়িয়ে মারার ঘটনা ঘটল। সুত্র: মিরর, দ্যা গার্ডিয়ান, ডেইলি মেইল

2015_10_25_13_01_22_4qt4pZXbjocgmAAahx5EunzypcHwq4_800xauto

ক্লিক করে ভিডিও দেখুন: