মেইন ম্যেনু

যুবরাজের প্রেমিকা হিন্দু নন, তাই জুটল না টাকা…

প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ যুবরাজ সিংহ। রেগে অগ্নিশর্মা তাঁর বান্ধবী হ্যাজেল কিচও।
আর দিনকয়েকের ভিতরেই খবর হবে যুবি ও হ্যাজেল বিয়ে করছেন। দিনক্ষণও জানাজানি হয়ে যাবে। হঠাৎই দু’জন ক্ষেপে গেলেন কেন? খবরের ভিতরের খবর বলছে, সম্পূর্ণ ভিন্ন কারণে দু’জনে প্রচণ্ড রেগে গিয়েছেন। মাঠের বাইরের কারণ বলতে পারেন!

আর্থিক লেনদেনকারী সংস্থা ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন হ্যাজেল কিচকে প্রদেয় অর্থ প্রদান করতে অস্বীকার করে। কারণ হিসেবে তাদের তরফে বলা হয়েছে, হ্যাজেলের নামটা ঠিক হিন্দুর নামের মতো শোনাচ্ছে না। সেই কারণেই যুবরাজের প্রেমিকাকে টাকা দেওয়া হয়নি। এটাই হ্যাজেলকে রাগানোর পক্ষে যথেষ্ট ছিল। যুবরাজের বান্ধবী ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন টুইটারে। যে লোকটির কাছ থেকে বর্ণবৈষম্যের শিকার হয়েছেন হ্যাজেল, তাঁর নাম পীযূষ শর্মা। তাঁকেও ছেড়ে কথা বলেননি হ্যাজেল। টুইটে যুবরাজের বান্ধবী বলেছেন, ‘‘জয়পুর শাখার ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নের পীযূষ শর্মা আমার দেখা সবচেয়ে বর্ণবিদ্বেষী মানুষ। আমার নামটা হিন্দুর মতো না-শোনানোয় টাকাই দেওয়া হল না। এই মানুষটার আচরণে আমি আহত।’’

বান্ধবীর এ হেন অপমান মেনে নিতে পারেননি ভারতীয় ক্রিকেটার যুবরাজ সিংহ। হ্যাজেলের স্বপক্ষে নেমে পড়েন এই বাঁ হাতি অলরাউন্ডারও। তিনিও টুইটারের আশ্রয়ে আক্রমণ করেন ওয়েস্টার্ন ইউনিয়নকে। টুইটে যুবি লেখেন, ‘‘ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন-এর এ হেন ব্যবহার মেনে নেওয়া যায় না। আমরা সবাই মানুষ। বর্ণবিদ্বেষ কখনওই মেনে নেওয়া যায় না। মিস্টার পীযূষ শর্মার আচরণ অত্যন্ত দুঃখজনক। আশা করি, ওঁর বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’’