মেইন ম্যেনু

যেভাবে আপনাকে ‘খুন’ করতে পারে চিনি

খেতে ভালো লাগলেও মিষ্টি আসলে সব সময় মিষ্টি কিছু বয়ে আনতে পারে না। সেই কথাই ‘দ্য কেস অ্যাগেইনস্ট সুগার’ বইতে তুলে ধরেছেন স্বাস্থ্য ও বিজ্ঞান বিষয়ক সাংবাদিক গ্যারি টাওবেস। এই সাংবাদিকের মতে, চিনি কেবল আমাদের দাঁতটাই মিষ্টি করে তা নয়, এটা আমাদের খুনও করতে পারে।

তিনি এক সাক্ষাৎকারে বলেন, মানুষ আজ চিনির কারণে মারা যাচ্ছে। সত্যিকার অর্থে প্রতি সেকেন্ডে মারা যাচ্ছেন। আধুনিক সমাজে মানুষের এ সংক্রান্ত সমস্যা অনেক বেড়ে যাচ্ছে।

আধুনিক সমাজের আধুনিক খাবার-দাবারের কারণেই এই অবস্থা। আধুনিক জীবনযাপনই মানুষকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেয়।

অতিরিক্ত চিনি খেলে স্মৃতিভ্রংশ দেখা দেয়। অতিরিক্ত চিনি খাওয়ার কারণে দেহে যথেষ্ট পরিমাণ ইনসুলিন উৎপন্ন হতে পারে না। মস্তিষ্কের কিছু কার্যক্রম বদলে দেয়। অনেক সময় তা অস্বাভাবিকও হতে পারে। ফলে আলঝেইমার্স ডিজিসের সম্ভাবনা বাড়তে থাকে। চিনি গ্রহণের কারণে বয়সের সঙ্গে স্মৃতিভ্রংশ রোগ বেশি দেখা যায়। চিনির পরিমাণ কমালে অবশ্যই ঝুঁকিও কমে আসবে।

ধূমপান যে স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর তা বলার অপেক্ষা রাখে না। কিন্তু চিনি সিগারেটকে আরো বেশি ক্ষতিকর করে দিতে পারে। তামাক অনেক সময় এর স্টার্চকে চিনিতে রূপান্তরিত করে বিশেষ এক পদ্ধতিতে। চিনি ধূমপায়ীদের ধূমপানে আরো বেশি উৎসাহী করে তোলে। তারা আরো গভীরভাবে ধূমপান করেন। ফলে চিনি বেশি খেলে ধূমপান আরো বেশি ক্ষতিকর হয়ে ওঠে। যার কারণে ক্যান্সারসহ মৃত্যুর ঝুঁকিও থাকতে পারে। সূত্র: ফক্স নিউজ