মেইন ম্যেনু

যেভাবে বৈধ হলো তাসকিন-সানির বোলিং অ্যাকশন

প্রতীক্ষার অবসান শেষে আবারও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার অপেক্ষায় দুই টাইগার বোলিং সেনসেশন আরাফাত সানি এবং তাসকিন আহমেদ। তাসকিনের জন্য টাইগার জার্সিতে ঝড় তোলা সময়ের ব্যাপার হলেও আপাত দৃষ্টিতে আরাফাত সানির জন্য সময়টা দীর্ঘ বলেই মনে করছেন ক্রিকেট বোদ্ধারা।

গত মার্চে ভারতের মাটিতে অনুষ্ঠিত টি২০ বিশ্বকাপ চলাকালে সন্দেহজন বোলিং অ্যাকশনের জন্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে সাময়িক নিষিদ্ধ হন সানি-তাসকিন। এরপর ব্রিজবেনের আরশি উতরে আজ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের ঘোষণায় মিললো মুক্তি।

তবে এ সময়টা মোটেও সহজ ছিলো না এ দুই বোলিং সেনসেশনের। কখন অগ্রজ মাশরাফি বিন মুর্তজা আবার কখনও তারই মতো কঠিন সময় পাড়ি দিয়ে আবারও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরা আল আমিন হোসেনের দারস্থ হতে দেখা গেছে তাসকিনকে। আবার আরাফাত সানিকে সাহস জুগিয়েছে তারই মতো একটা সময় সন্দেহজন বোলিং অ্যাকশনের জন্য নিষিদ্ধ আব্দুর রাজ্জাকের ফেরার পরের পার্ফরমেন্স। কেননা, বোলিং অ্যাকশন শুধরে ফেরার পরের আব্দুর রাজ্জাক ছিলেন আগের আব্দুর রাজ্জাকের থেকে আরও বেশি ক্ষুরধার।

শুরুর সময়টা গত মার্চের ৯ তারিখ। টি২০ বিশ্বকাপ সানি-তাসকিনের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন ম্যাচ আম্পেয়ার। এরপর ১৯ মার্চ চেন্নাইয়ে শুদ্ধি পরীক্ষায় মধ্যদিয়ে যেতে হয় তাদের। তবে পরীক্ষা পদ্ধতি নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হলেও সব ধরণের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে তাদের সাময়িক ভাবে নিষিদ্ধ করে আইসিসি।

এরপর ২১ মার্চ আইসিসি’র সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল করে বিসিবি। তবে সে সময় জুডিশিয়াল কমিশনার আইসিসি’র রায়কেই বহাল রাখে। এরপর দেশে ফিরে বোলিং অ্যাকশন শোধরানোর কাজ করে যাচ্ছিলেন সানি-তাসকিন।

শুরুতে হিথ স্ট্রিকের তত্ত্বাবধায়নে কাজ শুরু করে তারা। পরবর্তী সময়ে তার চলে যাওয়ায় স্থানীয় কোচদের নির্দেশনায়ই চলছিলো তাদের বোলিং অ্যাকশনে শোধরানোর কাজ। সর্বশেষ বিসিবি ‘টুডি’ প্রযুক্তি ব্যবহার করে তাদের বোলিং অ্যাকশন বৈধ বলে নিশ্চিত হয়। এরপরই পরীক্ষার জন্য তাদের অস্ট্রেলিয়া পাঠানো হয়। গত ৮ সেপ্টেম্বর ব্রিজবেনে শুদ্ধি পরীক্ষার পর আজ মিললো দেশের ক্রিকেট প্রেমিদের জন্য সুখবর।

ফলে আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে প্রথম দুই ওয়ানডেতে প্রাথমিক দলে অন্তর্ভুক্তি নিয়ে বাধা থাকলো না তাসকিনের। কেননা, ১৪ জনের দল ঘোষণা বিধান থাকলেও আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ১৩ সদস্যের ঘোষণা করে বিসিবি। তখনই জানানো হয়েছিলো তাসকিনের জন্যই এ পথে হেঁটেছে বিসিবি।

তবে তাসকিন দ্রুতই দলে ফিরলেও সময়টা দীর্ঘ হতে পারে আরাফাত সানির জন্য। কেননা, আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরতে বোলিং অ্যাকশনে অনেকটাই পরিবর্তন আনতে হয়েছে সানির। সেক্ষেত্রে আবারও আগের ফর্ম নিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরতে সানিকে কিছুটা সময় দিতে চায় বিসিবি।

আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে ২০ জনের পুলেই তাকে রাখেনি বিসিবি। আবার তাসকিন আবাহনীর জার্সি গায়ে প্রিমিয়ার লিগে খেললেও সানি পুরোটা সময় দিয়েছেন বোলিং অ্যাকশন শোধরানোর কাজে।