মেইন ম্যেনু

যে কারণে অশ্লীল ভিডিও বানিয়ে নিজের স্ত্রীকেই ব্ল্যাকমেইল করলো স্বামী!

গাড়ি কেনার জন্য পাঁচ লাখ টাকা না পেয়ে এক স্বামী নিজের স্ত্রীর অশ্লীল ভিডিও তৈরি করে তাকে ব্ল্যাকমেইল করতে শুরু করে। কিন্তু তারপরও স্ত্রী টাকা না দেয়ায় ওই অশ্লীল ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দিলেন স্বামী। ভারতের পাঞ্জাবের সুজানপুর এলাকার ঘটনা। এমনই অভিযোগের ভিত্তিতে সুজানপুর থানার পুলিশ স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করলেও তাকে এখনও আটক করেনি পুলিশ।

সুজানপুরের বাসিন্দা মহিলা তার অভিযোগে জানিয়েছেন, ২০০৮ সালে তার বিয়ে হয়। বিয়ের পরই তারা দুজনে পুনে ঘুরতে যায়। সেখানেই তার একটি অশ্লীল ভিডিও বানিয়েছিলেন তার স্বামী। সেটি মহিলাকে দেখানোর পর তিনি সেটি মোবাইল থেকে মুছে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। বিয়ের পর তাদের একটি ছেলে হয়, যার বয়স এখন পাঁচ বছর এবং তাদের সংসার ভালোভাবেই চলতে থাকে।

কিন্তু বিয়ের প্রায় ছয় বছর কেটে যাওয়ার পর তার স্বামী গাড়ি কেনার জন্য তাকে বাপের বাড়ি থেকে ৫ লাখ টাকা নিয়ে আসতে বলে। স্বামী মহিলাকে পুনেতে তৈরি করা ভিডিও ইন্টারনেটে ফাঁস করে দেয়ার হুমকি দেয়। কিন্তু মহিলার বাপের বাড়ি গরিব হওয়ার কারণে তারা টাকা দিতে পারেননি। মহিলার অভিযোগ কিছুদিন আগে সে এক আত্মীয়ের বাড়িতে অনুষ্ঠানে যায়। সেখানেই তাকে কিছু যুবক অশ্লীল কথা বলতে থাকে। তাদেরকে এমন ব্যবহারের কারণ জিজ্ঞেস করলে তারা অশ্লীল ভিডিও ইন্টারনেটে ফাঁস হওয়ার কথা জানায়।

মহিলা উক্ত ভিডিওটির সিডি বানিয়ে পুলিশের কাছে জমা দিয়েছেন। অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ অভিযুক্ত স্বামী হরমিন্দ্র সিংয়ের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে। সুজানপুরের এসএইচও পরমবীর সিং জানিয়েছেন, অভিযুক্ত আপাতত পলাতক৷ তাকে আটক করার জন্য খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ। খুব তাড়াতাড়ি তাকে আটক করা হবে।