মেইন ম্যেনু

যে কারণে এই ২৫ বছরের সুন্দরীকে খুঁজছে পুলিশ

সুন্দরী এই মেয়েটির বয়স এখন ২৫। লিদিয়ান লেইটে এই বয়েসেই ব্রাজিলের এক শহরের মেয়র। ১৫০ মাইল দূর থেকে শুধু হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে শহরের প্রশাসনিক কাজ করেন লিদিয়ান। সেই লিদিয়ান বড় কেলেঙ্কারি করে বসেছেন। উন্নয়নের বিভিন্ন কাজ যেমন স্কুল ফান্ড, পার্ক তৈরির টাকা সব আর্থিক কর্মকাণ্ডে বড় মাপের কেলেঙ্কারি করেছেন। স্কুল ফান্ড থেকে এত টাকা সরিয়েছেন যে শিক্ষকরা মাইনে পর্যন্ত পাচ্ছেন না।

এদিকে, ২৫ বছরের সুন্দরী মেয়র তাঁর ফেসবুকে লিখছেন, ‘মেয়র হওয়ার আগে আমি গরীব ছিলাম। আগে আমার ছিল পুরনো একটা ল্যান্ড রোভার, এখন আছে টয়োটা এসফোর। আমার এখন আর টাকার অভাব নেই, এখন আমি নতুন একটা দামি গাড়ি কিনব। ‘মাঝে মাঝেই সেলফি তুলে ছবি পোস্ট করেন।

আর্থিক কেলেঙ্কারি নিয়ে যখন তাঁকে নিয়ে তোলপাড় গোটা শহরে তখন লিদিয়ান শ্যাম্পেনের গ্লাস হাতে ছবি পোস্ট করলেন। ২৫ বছরের লিদিয়ান মেয়র হওয়ার সুযোগ পান ২০১২ সালে যখন তাঁর স্বামী বেটো রোচা আর্থিক কেলেঙ্কারি অভিযোগে ভোটে দাঁড়াতে পারেননি বলে। কেলেঙ্কারির অভিযোগের সত্যতা সামনে আসতেই পুলিশ নড়েচড়ে বসে। মেয়রকে গ্রেফতার করার সমন জারি করা হতে পারে। ততক্ষণে মেয়র পালিয়েছেন।

সাও লুইসের বাড়ি থেকে বেপাত্তা মেয়র। এখান থেকে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে প্রশাসনিক কাজ সারেন সুন্দরী মেয়র। মেয়রের আইনজীবী এখন বলছেন, ‘শহরের প্রধান হয়ে কাজ করার বিষয়ে এখনও তার মক্কেল বেশ ছোট। তাই ভুল করে ফেলেছে। তা ছাড়া ওর আত্মবিশ্বাস তলানিতে ঠেকেছিল, ওর স্বামীর কিছু কেলেঙ্কারির দায়ও ওর ওপর চাপানো হচ্ছে।’