মেইন ম্যেনু

যে কারণে বিবাহিত মানুষের অ্যালকোহল পানের হার কম

বহু মানুষেরই অ্যালকোহল পানের কারণে সংসার জীবনে নানা ধরনের সমস্যা সৃষ্টি হয়। তবে গবেষকরা বলছেন, বিবাহিত মানুষের মদ্যপানের হার অন্যদের তুলনায় কম। আর তাই ক্ষতিকর এ অভ্যাস দূর করতে চাইলে বিবাহিত জীবন হতে পারে একটি সমাধান। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে হিন্দুস্তান টাইমস।

যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিট অব ভার্জিনিয়ার গবেষণায় বিষয়টি উঠে এসেছে। এতে গবেষকরা জানিয়েছেন, বিবাহিত মানুষেরা অন্যদের তুলনায় কম মদ্যপান করে।

এ বিষয়ে গবেষকদের একজন এইচবিটি মেডিকেল কলেজের অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর সুইয়োগ জয়সুয়াল। তিনি বলেন, ‘অনেকেই মানসিক চাপ ও বিনোদনের জন্য অ্যালকোহল পানকেই বেছে নেন। তবে যারা কোনো একটি সম্পর্কে আবদ্ধ তারা একে অন্যের মাঝেই এ বিষয়গুলোর সমাধান পান। ফলে বিনোদন ও মানসিক চাপ কমাতে অ্যালকোহল পানের মতো বিষয়ে নির্ভরশীল হওয়ার প্রয়োজন হয় না। এমনকি তারা একত্রে পান করলেও তা একনি নির্দিষ্ট মাত্রার মাঝে থাকে।’

মদ্যপান কী সম্পর্ক নষ্ট করতে পারে? এ প্রসঙ্গে গবেষকরা বলছেন, হ্যাঁ মদ্যপান প্রায়ই স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক নষ্ট করতে পারে। এক্ষেত্রে কয়েকটি লক্ষণ হলো-

– মদ্যপায়ীর ধারণা হতে পারে মদ্যপানের পর সঙ্গীর সঙ্গে কাছাকাছি হওয়া যায়

– বিভিন্ন জটিল বিষয় অবতারণা করা মদ্যপানের পর

– আয়ের অধিকাংশই মদ্যপানের পেছনে খরচ করা

– সন্তানের ওপরও মদ্যপানের প্রভাব বিস্তার করা এবং তারা একে আকর্ষণীয় বিষয় মনে করা।

এ ধরনের বিষয়গুলো যখন মদ্যপায়ীর মাঝে প্রভাব বিস্তার করে তখন তা মারাত্মক বিপদের পূর্বাভাষ। গবেষকরা বলছেন, মদ্যপান স্বাস্থ্যের জন্য যেমন ক্ষতিকর তেমন সামাজিক সম্পর্ক নষ্টের জন্যও দায়ী।