মেইন ম্যেনু

যে কারণে, স্বামীর গোপনাঙ্গ কর্তন করে দিলেন স্ত্রী

প্রথম বিয়ের কথা গোপন করায় গাজীপুরের শ্রীপুর বাঘমারা এলাকায় আব্দুস সালাম নামের এক ব্যক্তির গোপনাঙ্গ কেটে দিয়েছে তার দ্বিতীয় স্ত্রী। তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। স্থানীয় জনতা শাহনাজ পারভীন ওরফে শানু (২৫) নামের ২য় স্ত্রীকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

মঙ্গলবার সকাল ৭টা থেকে ৮ টার মধ্যে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, স্থানীয় আব্দুস সালাম নামে এক ব্যক্তি তার প্রথম স্ত্রী ও দুই সন্তানের কথা গোপন রেখে প্রায় ৫ বছর আগে উপজেলার ভাংনাহাটি গ্রামের মৃত আব্দুল হামিদের কন্যা শানু (২৫) কে বিয়ে করে। সম্প্রতি সালামের ১ম স্ত্রী সন্তানের কথা ২য় স্ত্রী জানতে পারে।

এ নিয়ে ঝগড়া ঝাটির এক পর্যায়ে সালাম বাড়ি ছেড়ে চলে যায়। বিষয়টি মীমাংশার কথা বলে শানু সোমবার সকাল ৭টার দিকে সালামকে শানুর বাড়িতে নিয়ে আসে। কথাবার্তার এক পর্যায়ে শানু উত্তেজিত হয়ে সাবল দিয়ে সালামের ঘারে আঘাত করলে সে জ্ঞান হারায়।

উত্তেজিত শানু সাবল দিয়ে এলোপাতারিভাবে আঘাত করে শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করে। পরে ধারালো ব্লেড দিয়ে সালামের যৌনাঙ্গ কেটে দেয়।

এদিকে ডাক-চিৎকার ও আওয়াজ শুনতে পেয়ে আশপাশের লোকজন এসে শানুকে আটক রাখে। পরে পুলিশ এসে তাকে আটক করে। আহত আব্দুস সালামকে শ্রীপুর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত ডাক্তার আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠনো হয়েছে।

শ্রীপুর উপজেলা হাসপাতালের আর. এম. ও ডা. সুমন জানান, আব্দুস সালামের লিঙ্গের প্রায় ৭৫ ভাগ কাটা হয়েছে। স্থানীয়ভাবে এর কোনো চিকিৎসার ব্যবস্থা না থাকায় প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানায়, সালামকে হত্যা চেষ্টার অভিযোগে ২য় স্ত্রী শাহনাজ পারভীন শানুকে আটক করা হয়েছে।