মেইন ম্যেনু

যে জেলায় প্রকাশ্য ধূমপান নিষিদ্ধ, ধরা পড়লে মোটা অঙ্কের জরিমানা

১ জুন থেকে ধূমপান নিষিদ্ধ হচ্ছে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায়। নিষিদ্ধ হচ্ছে স্কুল কলেজের সামনে তামাকজাত দ্রব্যের বিক্রিও। রাজ্যের প্রথম জেলা হিসেবে দক্ষিণ দিনাজপুরেই নিষিদ্ধ হতে চলেছে প্রকাশ্যে ধূমপান।

আপনি কি চেইন স্মোকার? রাস্তা ঘাট, অফিস, বাড়ি বাছ বিছার না করেই ধূমপান করেন? দক্ষিণ দিনাজপুরের বাসিন্দা হলে বা ওই জেলায় গেলে এ অভ্যাসে বদল আনুন। জেলা স্বাস্থ্য দফতরের উদ্যোগে বুধবার থেকে এই জেলায় নিষিদ্ধ হচ্ছে প্রকাশ্য ও খোলা জায়গায় ধূমপান।

প্রকাশ্য বা খোলা জায়গায় ধূমপান করলেই দিতে হবে ২০০ টাকা পর্যন্ত আর্থিক জরিমানা এবার জেনে নেওয়া যাক আইন অনুযায়ী প্রকাশ্য স্থানগুলি কী কী? সিগারেট ও অন্যান্য তামাকজাত দ্রব্য আইন ২০০৩ অনুযায়ী, যেখানে ৩০-এর বেশি মানুষ থাকেন, সেগুলি হল প্রকাশ্য স্থান। অডিটোরিয়াম, সিনেমা হল, হাসপাতাল, গণ পরিবহণ ও গণ পরিবহণের পরিষেবা যেখানে পাওয়া যায় যেমন বাসস্ট্যান্ড/রেল স্টেশন/বিমানবন্দর, রেস্তোঁরাঁ, হোটেল, বার, পাব, অ্যামিউজমেন্ট সেন্টার, সরকারি ও বেসরকারি অফিস, লাইব্রেরি, আদালত, পোস্ট অফিস, বাজার, শপিং মল, ক্যান্টিন, রিফ্রেশমেন্ট রুম, ব্যাঙ্কোয়েট হল, ডিসকোথেক, কফি হাউস, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং পার্ক। খোলা জায়গা বলতে বোঝানো হয়েছে যেখানে সাধারণ মানুষের যাতায়াত যেমন খোলা অডিটোরিয়াম, স্টেডিয়াম, বাস স্ট্যান্ড।

অর্থাত্‍ বুঝে গেলেন তো, কোথায় কোথায় ধূমপান করা যাবে না। আইন অনুযায়ী, নিজের বা কারো বাড়ি, নিজের গাড়ি এবং নিজের চেম্বারে ধূমপান করা যাবে হোটেল, রেস্তোঁরাঁ, বিমানবন্দর এবং খোলা জায়গায় স্মোকিং জোন থাকলেও সেখানে ধূমপান করা যাবে।

ধূমপান বন্ধ করার পাশাপাশি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১০০ মিটার ব্যাসার্ধের মধ্যে তামাকজাত দ্রব্য বিক্রি নিষিদ্ধ করা হচ্ছে। তবে হঠাত্‍ নিয়ম চালু করলেই তো আর হল না। জনমানসে সচেতনতা আগে দরকার। এ জন্য আগামী কয়েক মাস লাগাতার সচেতনতা অভিযান হবে। এছাড়াও জেলা স্বাস্থ্য দফতরের যে কমিটির মাধ্যমে এই সিদ্ধান্ত, সেই ২২ জনের কমিটিও প্রতি মাসে রিভিউ মিটিংয়ে বসবে। খতিয়ে দেখবেন, কতটা বন্ধ হল ধূমপান।