মেইন ম্যেনু

যে দেশে চীনা সুন্দরীদের প্রেম কাহিনী

বছরের প্রথম দিনটি পরিবারের সাথে উদযাপন করতে বহু চীনা নাগরিক বিভিন্ন দেশ থেকে নিজের দেশে চলে গেছেন। কিন্তু পরিবারের একটি গুরুত্বপূর্ণ অনুষ্ঠানের আগে অনেক চীনা সুন্দরী তার হবু স্বামীকে নিয়ে ছুটে আসছেন লন্ডনে।

এরকম দম্পতির সংখ্যা বছরে বছরে বাড়ছে। লন্ডনের আকর্ষণীয় বিভিন্ন স্থানে দম্পতিরা ছবি তুলছেন। বিয়ের ছবি তোলার সাথে জড়িত ব্যক্তিরা বলছেন, দিনে দিনে এ ব্যবসা বাড়ছে এবং এর ফলে প্রচুর অর্থ আসছে ব্রিটেনে।

এমন একজন ফটোগ্রাফার রে উ বলেছেন, বিয়ের ছবি তোলার জন্য বহু চীনা এখন ব্রিটেনে আসছে। গত বছরেই আমি একা এরকম দুশ’ দম্পতির ছবি তুলেছিলাম। আশা করছি, এবছর এই সংখ্যাটা আরো অনেক বাড়বে।

এরকম এক দম্পতি বলছেন, তারা লন্ডনেই লেখাপড়া করেছেন। এ শহরে তাদের বহু স্মৃতি। কিন্তু বিয়ের মতো জীবনের গুরুত্বপূর্ণ একটি ঘটনায় এ শহরকেও তারা সাক্ষী করে রাখতে চান।

ফটোগ্রাফাররা বলছেন, লন্ডনে তোলা এসব ছবি দিয়ে তারা বড় বড় অ্যালবাম ও ক্যানভাস তৈরি করেন এবং বিয়ের অনুষ্ঠানে আসা অতিথিদের সামনে এসব তুলে ধরেন।

ফটোগ্রাফাররা বলছেন, এসব ছবিতে লন্ডনের বৈশিষ্ট্য তুলে ধরা হয়।

একজন হবু স্ত্রী জানান, এসব ছবি তোলার সময় স্থানীয় অনেক মানুষ তাদের দিকে তাকিয়ে থাকেন। কিন্তু এতে তারা মোটেও বিব্রত হন না। তারা বরং সেটাকে উপভোগই করেন।

তিনি বলেন, এটা হলো লন্ডনে আমাদের লাভ স্টোরি বা প্রেমের কাহিনী।

চীনা ফটোগ্রাফাররা বলছেন, তাদের একটা বাড়তি সুবিধা আছে। কারণ দম্পতিরা তাদের সাথে সরাসরি কথা বলতে পারেন। তারা জানেন, চীনা সংস্কৃতিতে দম্পতিরা কীভাবে পোজ দিয়ে ছবি তুলতে চান। তথ্যসূত্র : বিবিসি