মেইন ম্যেনু

যে ধরনের প্রশ্ন করা হয় গুগলের ইন্টারভিউয়ে

প্রতিযোগিতার এ বাজারে চাকরির ইন্টারভিউয়ের জন্য নানা রকম কঠিন প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয় চাকরি প্রার্থীদের। আর সেটি যদি হয় গুগলের মতো প্রতিষ্ঠান তাহলে তো কথাই নেই। অনেকের মনে প্রশ্ন হতে পারে গুগলে চাকরির ইন্টারভিউয়ে কী ধরেনর প্রশ্ন করা হয়?

আপনার এ প্রশ্নের জবাব খুঁজতে একটি জরিপ চালিয়েছিল কুওরা নামের এক ওয়েবসাইট। কুওরা ব্যবহারকারীরা প্রত্যেকেই নিজেদের গুগলের চাকুরিজীবী অথবা প্রাক্তন চাকরিজীবী পরিচয় দিয়ে তাদের প্রশ্ন পোস্ট করেন।

সে প্রশ্নগুলো থেকে সবচেয়ে কঠিন কিছু প্রশ্ন এ প্রতিবেদনে জানানো হলো।

১. যুক্তরাষ্ট্রে কতটি পেট্রোল স্টেশন আছে?

২. বিল্ডিংয়ের সকল জানালা পরিস্কার করার জন্য আপনি কত পারিশ্রমিক দাবি করবেন?

৩. সান ফ্যান্সিসকোর ইভ্যাকুয়েশন (বর্জ্য অপসারণ) প্রক্রিয়ার একটি নকশা তৈরি করুন।

৪. এক দিনে ঘড়ির কাঁটাগুলো কতবার নির্দিষ্ট একটি স্থান অতিক্রম করে?

৫. যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি বছর কতটি ভ্যাকুয়াম তৈরি হয়?

৬. কী কারণে ম্যানহোল ঢেকে রাখা হয়?

৭. প্রতি বছর যুক্তরাষ্ট্রে কী পরিমাণ শিক্ষার্থী থাকেন যারা কলেজ সিনিয়র, চার বছর স্কুলে কাটান, এবং চাকরি পেয়ে স্নাতক শেষ করেন?

৮. ঘড়িতে যখন সময় সোয়া তিনটা তখন ঘণ্টার কাঁটা এবং মিনিটের কাঁটা যে অবস্থানে থাকে তাদের মধ্যবর্তী স্থান কত ডিগ্রি?

৯. আপনি একজন জলদস্যু জাহাজের ক্যাপ্টেন, আপনাকে জাহাজের সদস্যদের ভোটে সোনা ভাগ করতে হবে। যদি অর্ধেকের বেশি সদস্য আপনার সঙ্গে একমত হন তাহলে আপনি মারা যাবেন। তাহলে আপনি কীভাবে ভাগ করবেন, যেখানে আপনি ভাগেও বেশি পাবেন আবার বেঁচেও থাকবেন?

ভাবছেন প্রশ্ন ফাঁস হয়ে গেল তাহলে কী হবে? ভয় নেই গুগলের একজন কর্মচারি জানিয়েছেন একবার যে প্রশ্ন অনলাইনে ফাঁস হয়ে যায় তা আর ব্যবহার করেন না গুগল কর্মকর্তারা।