মেইন ম্যেনু

যে ৫টি সুপারফুড আপনার ত্বককে স্বাস্থ্যোজ্জ্বল করে তুলবে

আমরা প্রতিনিয়ত যেসকল খাবার খাচ্ছি তা সরাসরি আমাদের শরীরে প্রভাব ফেলছে। শুধু শরীর নয় এটি আমাদের ত্বকেও প্রত্যক্ষভাবে প্রভাব ফেলে থাকে। কিছু খাবার আছে যা অতিরিক্ত খাওয়ার ফলে ত্বকে ব্রণ, অ্যালার্জি, র‍্যাশ সহ নানা সমস্যা দেখা দিয়ে থাকে। আবার এমন কিছু খাবার আছে ত্বকের উজ্জলতা বৃদ্ধি করে ত্বক সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। প্রতিদিনকার খাদ্যতালিকায় রাখতে পারেন এই খাবারগুলো।

১। টমেটো

টমেটো বা টমেটোযুক্ত যেকোন খাবার ত্বকে ব্রণ উঠা কমিয়ে দেয়। Alan Logan মতে টমেটোতে লাইকোপেন (যা টমেটোকে লাল করে থাকে) ত্বকে ব্রণ উঠার প্রবণতা কমিয়ে দেয়। এছাড়া এটি সূর্যের ক্ষতিকর আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করে থাকে। সালাদ, কিংবা তরকারিতে টমেটো ব্যবহার করতে পারেন।

২। গ্রীন টি

গ্রীন টি শুধু স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী নয়, এটি ত্বকের জন্যো বেশ উপকারী। এর অ্যান্টি অ্যাক্সিডেন্ট উপাদান ত্বকে বয়সের ছাপ পড়া রোধ করে থাকে। নিয়মিত গ্রীন টি পানে আপনার ত্বকের উজ্জ্বলতা বেড়ে যাবে বহুগুণ।

৩। স্ট্রবেরি

স্ট্রবেরির ম্যালিক অ্যাসিড ত্বককে প্রাকৃতিকভাবে উজ্জ্বল করে তোলে। এতে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট আছে যা ত্বককে স্বাস্থ্যকর করে তোলে। প্রতিদিন কিছু পরিমাণে স্ট্রবেরি খান। আপনি চাইলে এটি প্যাক হিসেবেও ব্যবহার করতে পারেন। স্ট্রবেরি, মধু এবং টকদই মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। ১৫ মিনিট ত্বকে লাগিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি ত্বক নরম কোমল করতে সাহায্য করবে।

৪। পেঁপে

প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ এবং এনজাইম আছে যা ত্বককে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। এটি ত্বকের মৃত কোষ দূর করে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে থাকে। শরীরে সোডিয়ামের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে ত্বক হাইড্রেটেড রাখতে সাহায্য করে থাকে।

৫। মাছ

Journal of the American College of Nutrition এক জার্নালে প্রকাশ করেছেন যে যারা নিয়মিত সামুদ্রিক মাছ এবং মাছ খান তাদের ত্বকে বলিরেখা তুলনামূলকভাবে কম পড়ে থাকে। মাছের ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড ত্বকে বলিরেখা পড়ার গতি ধীর করে থাকে। Koo প্রতি সপ্তাহে তৈলাক্ত সামুদ্রিক মাছ খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। যদি আপনি মাছ খেতে না পারেন, তবে এর বিকল্প হিসেবে ফিশ ওয়েল খেতে পারেন।

এছাড়া ডিম, আপেল, আমলকী, শাক সবজি আপনার ত্বককে সুস্থ রাখতে সাহায্য করবে। নিয়মিত খাওয়ার চেষ্টা করুন এই খাবারগুলো আর পেয়ে যান স্বাস্থ্যোজ্বল সুন্দর ত্বক।