মেইন ম্যেনু

যে ৭টি কাজ কখনও করেন না সুখী মানুষেরা

আপনি কি সুখী নাকি দুঃখী মানুষ? এটি বোঝার জন্য আপনাকে কোন কঠিন পরীক্ষা দেওয়ার বা অন্য কাউকে জিজ্ঞাসা করার প্রয়োজন নেই। ছোট ছোট কিছু কাজের মাধ্যমেই আপনি বুঝতে পারবেন আপনি সুখী কিনা। United States সম্প্রতি এক গবেষণায় প্রকাশ করেছে যারা সুখী মানুষেরা অদ্ভুত কিছু কাজ করে থাকেন, যারা অসুখী মানুষ তারা এই কাজগুলো করেন না। আপনি এই কাজগুলো এড়িয়ে গিয়ে সুখী মানুষদের দলে চলে আসতে পারেন।

১। অন্যরা কি ভাবলো সেটা নিয়ে চিন্তা করেন না

আপনি যদি সবসময় আপনার চারপাশের মানুষকে নিয়ে চিন্তা করেন। তাদেরকে খুশি করার চেষ্টা করতে থাকেন, তবে আপনি সবসময় অসন্তুষ্ট থাকবেন নিজের জীবন নিয়ে। আপনি যখন অন্যকে নিয়ে চিন্তা করা ছেড়ে দেবেন তখন নিজেকে নিয়ে চিন্তা করার সময় পাবেন। আর তখন নিজের ক্ষমতা, যোগ্যতা আবিষ্কার করতে পারবেন।

২। স্যোশাল মিডিয়া থেকে দূরে থাকেন

শুনে খুব অবাক লাগবে সুখী মানুষেরা স্যোশাল মিডিয়া থেকে দূরে থাকেন। স্যোশাল মিডিয়ার যেমন ভাল দিক আছে তেমনি এর ক্ষতিকর প্রভাবও কম না। তাঁরা সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করলেও সেটি সীমার মধ্যে করে থাকেন। ঘণ্টা পর ঘণ্টা তারা সোশ্যাল মিডিয়া সময় নষ্ট করেন না। সোশ্যাল মিডিয়ায় সময় কাটানোর চেয়ে তাঁরা পরিবারকে বেশি সময় দিতে পছন্দ করে থাকেন।

৩। নেতিবাচক মানুষের সঙ্গ এড়িয়ে চলেন

সুখী মানুষেরা নেতিবাচক মানুষের সঙ্গ এড়িয়ে চলে। কারণ তাঁরা জানেন নেতিবাচক মানুষদের চিন্তা ভাবনা তার নিজের মাঝেও চলে আসবে। তখন তিনি নিজেও জীবন সম্পর্কে নেতিবাচক চিন্তা করা শুরু করবেন। তাই এমন মানুষের সঙ্গ তাঁরা এড়িয়ে চলেন।

৪। প্রথমে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন না

কোন ঘটনা সম্পর্কে সম্পূর্ণ না জেনে কোন বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়াটা বুদ্ধিমানের কাজ নয়। প্রথমে সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেললে পরে সেটি নিয়ে অনুতপ্ত করা ছাড়া আর কিছু করার থাকে না। তাছাড়া প্রথমেই কোনও ঘটনা সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেললে বা তা নিয়ে নেতিবাচক ভাবনা মনে করে দুশ্চিন্তা করা ছাড়া আর কোন উপায় থাকে না।

৫। তুলনা করেন না

তুলনা কখনও আপনাকে আপনার জায়গা থেকে অন্য কারোর জায়গায় নিয়ে যাবে না কিংবা এটি আপনার জীবনে সাফল্য এনে দিবে না। বরং আপনার জীবনক দুর্বিষহ করে তুলবে।

৬। অতীত নিয়ে পরে থাকেন না

অতীতকে আপনি অস্বীকার করতে পারবেন না। অতীত জীবন থেকে মানুষ অনেক কিছু শিক্ষা গ্রহণ করতে পারেন। কিন্তু তাই বলে অতীত জীবনের মধ্যে বেঁচে থাকা উচিত নয়। সুখী মানুষেরা কখনওই এই কাজটি করে থাকেন না। তাঁরা বর্তমানকে গুরুত্ব দিয়ে থাকেন।

৭। নিজেকে দোষারোপ না করা

জীবনের কঠিন বাস্তবতা আমারা যেমন জীবন শৈশব থেকে চিন্তা করে আসছি বড় হয়ে সে জীবনটি পাই নি। আর এর জন্য আমরা নিজেকে, নিজের চারপাশের ঘটনাকে দায়ী করে থাকি। কিন্তু আপনার হাতে সবকিছু নয়। আপনি যদি সব ঘটনার জন্য নিজেকে দায়ী করেন তবে আপনি কখনই সুখী হতে পারবেন না। নিজের স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করার চেষ্টা করুন কিন্তু তার সাথে বাস্তবতাকে মেনে নেওয়ার চেষ্টা করুন।

জীবনকে জটিল না করে সহজ করে দেখুন। দেখবেন সুখী হওয়া খুব কঠিন কাজনয়।