মেইন ম্যেনু

যৌনকর্মীদের ২ টাকা কেজি চাল দিবে সরকার

দু’টাকা কিলো দরে রেশনে গরিব মানুষের জন্য চাল ও গমের ব্যবস্থা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ এবার আরও একধাপ এগোল রাজ্য৷ শুধু গরিব ও নিম্ন আয়ের মানুষই নয়, এবার থেকে যৌনকর্মী ও এইচআইভি আক্রান্তরাও ২ টাকা কেজি দরে চাল পাবেন৷

দেশের মধ্যে একমাত্র পশ্চিমবঙ্গেই এত কম মূল্যে চাল ও গম দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে৷ এবারের প্রকল্পটিও মুখ্যমন্ত্রীর মস্তিষ্কপ্রসূত৷ খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, দেশের অন্য কোনও রাজ্য যৌনকর্মী ও এইচআইভি রোগীদের জন্য এমন ব্যবস্থা নেয়নি৷ কুষ্ঠ রোগী, মূক ও বধির শিশুরাও এই স্কিমের অন্তর্ভূক্ত৷

প্রথম দফায় প্রায় এক লক্ষ মানুষকে এই পরিষেবা দেওয়া হবে৷ আর কয়েকদিনের মধ্যেই রাজ্য খাদ্য দফতর একটি সমীক্ষা শুরু করবে, যার মাধ্যমে যৌনকর্মী ও এইচআইভি রোগীদের চিহ্নিত করা হবে৷ সোনাগাছির নিষিদ্ধপল্লি থেকে সমীক্ষাশুরু হবে৷ অন্যদিকে হাসপাতাল ও ভিন্ন স্বাস্থ্যকেন্দ্র থেকে এইচআইভি রোগীদের চিহ্নিত করা সম্ভব হবে৷ তারপর তাঁদের রেশন কার্ড খাদ্য দফতরের ডেটা ব্যাঙ্কে জমা পড়বে৷ তারপর থেকে ২ টাকা কেজি দরে চাল পেতে তাঁদের আর কোনও অসুবিধা হবে না৷

আগামী ৬ মাসের মধ্যে সমীক্ষা শেষ হয়ে যাবে৷ সেই মতো ২০১৭-র জানুয়ারী থেকে এই পরিষেবা চালু করা হবে৷ যৌনকর্মীরা মাঝেমধ্যেই নানা ধরনের অসুখে ভোগেন৷ সস্তায় চাল পেলে তাঁরা উপকৃত হবেন বলে আমাদের আশা, এক সাক্ষাৎকারে জানান জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক৷ সুত্র-প্রয়োগ