মেইন ম্যেনু

যৌনসম্পর্ক করতে চেয়ে বৃদ্ধের সাথে ভূতের পীড়াপীড়ি!

এক নারী নাকি আধিভৌতিক শক্তির সাহায্যে ৬৬ বছর বয়সী এক বৃদ্ধেরসঙ্গে যৌনসম্পর্ক করতে পীড়াপীড়ি করছেন।

৬৬ বছর বয়সী ওই বৃদ্ধ পুলিশের কাছে বহুবার এ অভিযোগ করেছেন। কিন্তু প্রথমে পুলিশ পাত্তা দেয়নি।

ইন্দোরের অধিবাসী অভিযোগকারী অধ্যাপক চন্দ্রপ্রকাশ ত্রিবেদির বৈদিক বিজ্ঞানের ওপর ১০টি বই রয়েছে। সুতরাং এমন নামি ব্যক্তি বারবার অভিযোগে বাধ্য হয়ে পুলিশের সাইবার সেল তদন্ত শুরু করেছে।

স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমের খবর অনুযায়ী, ওই অধ্যাপকের দাবি, এক নারী এয়ার প্রেসার ম্যাগনেটো থেরাপি ব্যবহার করে তার সঙ্গে যৌন সম্পর্ক করতে চায়। তিনি ওই নারীর উপস্থিতিও অনুভব করেন। ওই অদৃশ্য নারীর চুম্বকীয় আকর্ষণ এড়াতে অনেক সময়ই মধ্যরাতে ঘর ছেড়ে পালিয়ে যেতে হয় তাকে।

চন্দ্রপ্রকাশ আরও বলেছেন, তার কথা হয়ত কেউ বিশ্বাসই করবে না বরং তাকে পাগল ভাববে। কিন্তু তিনি পাগল নন।

সাইবার সেলের অ্যাসিস্ট্যান্ট ইন্সপেক্টর জেনারেল এন কে ঝারিয়া এ ব্যাপারে বলেন, ‘এটা ব্যতিক্রম অভিযোগ। শুধু এই কারণেই অভিযোগ গ্রহণ না করার কোনও যুক্তি নেই। এখন অভিযোগ সম্পর্কে তদন্ত করা হবে। যদিও অন্যান্য তদন্তকারীরা এই অদ্ভূত অভিযোগের পিছনে অন্য কোনও বিষয় রয়েছে কি না তা নিয়ে সন্দিহান।’

মাদক সেবনের কারণে অতিমাত্রায় কল্পনাপ্রবণতা থেকেও এমন অনুভূতি হতে পারে বলে মনে করছেন এক পুলিশ কর্মকর্তা। তবে পরিবারের দাবি, চন্দ্রপ্রকাশ শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ।

চন্দ্রপ্রকাশ তার অভিযোগের সপক্ষে ‘সন্দেহভাজন’ নারী পাঠানো ই-মেইলও জমা দিয়েছেন। অধ্যাপকের দাবি, ওই নারী উড়িষ্যায় থাকেন এবং যৌন আবেদনে প্রলুব্ধ করার জন্য এয়ার প্রেসার ম্যাগনেটো থেরাপি ব্যবহার করছেন।