মেইন ম্যেনু

যৌনাবেদনময়ী তরুণীদের বাজার বেশি হলিউডে

হলিউডে কিশোরী অভিনেত্রীদের জোর করে যৌনোদ্দীপক চরিত্রে অভিনয় করানোর প্রবণতাকে একহাত নিলেন ‘গেইম অফ থ্রোন্স’ অভিনেত্রী মেইজি উইলিয়ামস। তার মতে, তিনি নিজে ভাগ্যবতী কারণ এরকম কোনো কিছুর মধ্য দিয়ে তাকে কখনও যেতে হয়নি।

ব্রিটিশ ওয়েবসাইট ফিমেইলফার্স্টকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে মেইজি বলেন, আমি সত্যিকার অর্থেই ভাগ্যবতী। এর কারণ আমি এমন সব চরিত্রে অভিনয় করেছি, যেগুলো সেই অর্থে কামোদ্দীপক নয়। কিন্তু হলিউড কমবয়সী অভিনেত্রীদের জন্য কঠিন এক জায়গা; কারণ এখানে কিশোরীদেরকেও জোর করে বেশি বয়সের চরিত্রে অভিনয় করানো হয়। কারণ ‘যৌনাবেদনময়ী তরুণী’দের বাজার বেশি হলিউডে।

ফ্যান্টাসি ড্রামা সিরিজ ‘গেইম অফ থ্রোন্স’-এর অন্যতম জনপ্রিয় চরিত্র আরিয়া স্টার্ক-এর ভূমিকায় অভিনয় দিয়ে মাত্র ১২ বছর বয়সে ক্যারিয়ার শুরু করেন মেইজি। এইচবিও’র এই সিরিজটি যৌনতা ও নগ্নতার জন্য সমালোচিত হলেও মেইজির চরিত্রটিকে এখনও পর্যন্ত এরকম কোনো দৃশ্যে দেখা যায়নি।

এখন ২০ বছর বয়সী মেইজি গত আট বছরে অভিনয় করেছেন ‘গেইম অফ থ্রোন্স’-এর আটটি মৌসুমে। এতে অভিনয়ের অভিজ্ঞতা তার জীবনকে পাল্টে দিয়েছে- এমনটাও মনে করেন তিনি।

১২ বছর বয়সে আমি ছিলাম অনেকটাই নির্বিকার। তাই, ওইসময়টা সত্যিই উপভোগ করেছি। কিন্তু এরপর একটা করে মৌসুম পার হতে লাগলো এবং ধীরে ধীরে চাপও বাড়তে থাকলো। আমার আত্মবিশ্বাসেও চিড় ধরতে লাগলো, বলেন তিনি।

মেইজি আরও বলেন, এরমধ্যে আমার বয়ঃসন্ধিকাল পার হলো। আমাকে স্কুল ছাড়তে হয়েছে অভিনয়ের জন্য। আমার বন্ধুও ছিলো না খুব বেশি। আমি আত্মবিশ্বাস হারিয়েছি। পুরো বিষয়টিই ধীরে ধীরে কাটিয়ে উঠেছি। আত্মবিশ্বাসও এখন একটু একটু করে ফিরে পেতে শুরু করেছি।

‘গেইম অফ থ্রোন্স’-এর সপ্তম সিজন শুরু হবে চলতি মাসেই। এবারের মৌসুমে আরিয়া স্টার্কের গল্পেও নতুন অনেক চমক থাকছে বলে জানান তিনি।






মন্তব্য চালু নেই