মেইন ম্যেনু

যৌবন ধরে রাখার চমকপ্রদ খাদ্য ও পুষ্টি

অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ খাবার আপনার ত্বক, চুল ও শরীরের জন্য বয়স-নিরোধ (Anti-ageing) হিসেবে কাজ করে। এগুলো আপনার বয়স কমিয়ে আপনাকে দেখাবে যৌবনদীপ্ত ও আকর্ষণীয়। আপনার ত্বক এবং চুল রক্ষা করতে এবং চেহারার তারুণ্য ধরে রেখে আপনার দৈনন্দিন পর্যাপ্ত খাদ্য এবং পুষ্টির যোগান দেবে। নিশ্চয়ই জানতে চান কোন খাবার? আসুন তবে জেনে নিন:

নারকেল তেল:
নারকেল তেল ত্বকের জন্য একটি চমৎকার ম্যাসেজ তেল। এটা শুষ্ক ত্বক সহ সব ধরনের চামড়া জন্য একটি কার্যকরী ম্যাসেজ হিসাবে কাজ করে। তাছাড়া নিয়মিত নারকেল তেল খাবারের সাথে রান্না করে খেলেও ত্বক অনেক বেশি সুন্দর উজ্জ্বল ও আকর্শনীয় হয়। কারণ নারকেল তেলের সাথে খনিজ তেলের তুলনা করা যায়। তাই তারুণ্য ধরে রাখতে নারকেল তেলের বিকল্প নেই।

স্যামন মাছ:
দুশ্চিন্তা, মানসিক চাপ ও হতাশা থেকে দূরে থাকার জন্য সেরা খাদ্য স্যামন মাছ। আর মন সুস্থ থাকলেই শরীর সুস্থ থাকে একথা কে না জানে। এছাড়াও স্যামনে প্রতিদিনকার প্রয়োজনীয় ভিটামিন ডি প্রচুর পরিমাণে রয়েছে। ভিটামিন ডিতে হৃৎপিন্ড, হাড়, কোলন এবং স্নায়ুকে সুস্থ রাখে। স্যামন মাছ খেলে কোলনে ক্যানসার হওয়ার প্রবণতা কমে যায়। এতে ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিডও বর্তমান যা আপনার ত্বককে ভেতর থেকে হাইড্রেট করে। স্যামন খেলে চুলও ঘন হয়।

আমলকী ও জাম:
এই ফলগুলো সারা পৃথিবীজুড়েই খুব সহজলভ্য। আমলকী ও জাম ত্বক, চুল ও স্বাস্থ্যের জন্য অনেক উপকারী। তাই এটি তারুণ্য ধরে রাখতে ও বয়সের ছাপ দূর করতে অনেক উপকারী। তাই তারুণ্য ধরে রাখতে বেশি বেশি আমলকী ও জাম খান।

ডার্ক চকোলেট
বয়স বাড়ার কিছু লক্ষণ ত্বকে দেখা যায়। আর সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি দ্রুত ত্বকে বয়সের ছাপ ফেলে দেয়। তবে ডার্ক চকোলেট খেলে বা পান করলে সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মির প্রভাব থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

সবুজ শাকসবজি:
সবুজ শাকসবজিতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি, ই এবং অ্যান্টি অক্সিডেন্ট আছে। ভিটামিন সি ও ই ত্বকে গভীর থেকে পুষ্টি যোগায়। ভিটামিন ই সূর্যের অতি বেগুনী রশ্মির ক্ষতি থেকে ত্বককে কিছুটা হলেও রক্ষা করে।-সূত্র: টাইমস অফ ইন্ডিয়া।



« (পূর্বের সংবাদ)