মেইন ম্যেনু

রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ ঠেকালেন এমপি কেয়া চৌধুরী

গ্রামের দুই গ্রুপের মধ্য তখন সংঘর্ষের উপক্রম। দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে তারা একে অপরের মুখোমুখি। বাকিরা আশপাশে দাঁড়িয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষ দেখছিলেন। এমন সময় ঘটনাস্থলের পাশ দিয়ে যাচ্ছিলেন এলাকার সংরক্ষিত নারী আসনের সাংসদ আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরী।

লাঠি-সোটা ও ধারালো অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে মারমুখি অবস্থা দেখে সিলেটের হবিগঞ্জের বাহুবলের এই এমপি ঘটনাস্থলে গিয়ে হাজির হন।

তুমুল সংঘর্ষের মাঝখানে গিয়ে তিনি দুই হাত নেড়ে সবাইকে শান্ত করার চেষ্টা করেন।বিবদমান দুই গ্রুপও তখন তাদের এমপিকে এ অবস্থায় দেখে হতচকিত হয়ে যান।এক পর্যায়ে নারী এমপির হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয়ে আসে। রক্তাক্ত সংঘর্ষ থেকে রক্ষা পায় গ্রামবাসী।

এমপি কেয়া চৌধুরী এ নিয়ে তাঁর ফেসবুকে একটি স্যাটাসে পুরো চিত্রটি তুলে ধরেণ। স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো- “আমি বিকালে মানিক্যা গ্রামে একটা অনুষ্ঠানে যাচ্ছিলাম। পথে হঠাৎ দেখি, মুখকান্দি গ্রামের দু’পক্ষে ধাওয়া-পাল্টা।

সকলের হাতে দেশীয় অস্ত্র। গ্রামের দুইগোষ্ঠীর প্রভাব নিয়ে সংঘর্ষের জের ধরে এ আক্রমণ। আমি নেমে পড়লাম। সকলকে শান্ত করে, পরিস্হিতি সামাল দিলাম। আল্লাহর প্রতি কৃতজ্ঞ তা বাহুবলকে খারাপ কিছু থেকে রক্ষা করেছেন বলে।“

কেয়া চৌধুরী তাঁর এই লেখার সাথে কিছু ছবিও দিয়েছেন যেখানে দেখা যাচ্ছে একদল মানুষ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে উত্তেজিত ভঙ্গিতে তর্কে লিপ্ত, আর সাংসদ কেয়া চৌধুরী তাদের থামানোর চেষ্টা করছেন।’