মেইন ম্যেনু

রপ্তানি আয়ে সুবাতাস

২০১৫-১৬ অর্থবছরে জুলাই-ডিসেম্বরে রপ্তানি আয় বেড়েছে। আলোচ্য সময়ে রপ্তানিতে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১ দশমিক ৩৮ শতাংশ বেশি আয় হয়েছে। গত অর্থবছরের প্রথম ৬ মাসের তুলনায় চলতি অর্থবছরের একই সময়ে বৈদেশিক মুদ্রা আয় বেড়েছে ৭ দশমিক ৮৪ শতাংশ।

মঙ্গলবার রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) হালনাগাদ প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

ইপিবির প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০১৫-১৬ অর্থবছরের প্রথম ৬ মাসে পণ্য রপ্তানিতে বাংলাদেশের আয় হয়েছে ১ হাজার ৬০৮ কোটি ৩৯ লাখ মার্কিন ডলার। গত বছর একই সময়ে বৈদেশিক মুদ্রা আয় হয়েছিল ১ হাজার ৪৯১ কোটি ৪২ লাখ ১০ হাজার মার্কিন ডলার।

চলতি অর্থবছরে শুধু ডিসেম্বরে বিভিন্ন খাতের রপ্তানিতে আয় হয়েছে ৩২০ কোটি ৪০ লাখ ৭০ হাজার মার্কিন ডলার। এই মাসে রপ্তানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২৯৮ কোটি ৬০ লাখ ডলার; অর্থাৎ লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৭ দশমিক ৩০ শতাংশ বেশি হয়েছে ডিসেম্বর মাসে। গত অর্থবছরের ডিসেম্বর মাসে রপ্তানি আয় হয়েছিল ২৮৪ কোটি ৪১ লাখ ৩০ হাজার মর্কিন ডলার। সে হিসেবে চলতি অর্থবছরে রপ্তানি আয় ১২ দশমিক ৬৬ শতাংশ বেড়েছে।

চলতি ২০১৫-১৬ অর্থবছরের জুলাই-ডিসেম্বরে রপ্তানি আয় লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১ দশমিক ৩৮ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। গত বছরের একই সময়ের তুলনায় বৈদেশিক মুদ্রা আয় বেড়েছে ৭ দশমিক ৮৪ শতাংশ।

২০১৫-১৬ অর্থবছরের প্রথম ৬ মাসে তৈরি পোশাকের নিটওয়্যার খাতে আয় হয়েছে ৬৪৩ কোটি ২০ লাখ ৫০ হাজার মার্কিন ডলার। যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২ দশমিক ৩৮ শতাংশ বেশি। ওভেন খাতের পণ্য রপ্তানিতে আয় হয়েছে ৬৭০ কোটি ৩৫ লাখ ৩০ হাজার মার্কিন ডলার; যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে শূন্য দশমিক ৩৫ শতাংশ বেশি।

গত ২০১৪-১৫ অর্থবছরের প্রথম ৬ মাসের তুলনায় চলতি অর্থবছরের প্রথম ৬ মাসে হিমায়িত খাদ্য রপ্তানি আয় ১৯ দশমিক ৫১ শতাংশ কমেছে। এছাড়া কৃষি পণ্য রপ্তানি ১৮ দশমিক ৫৮ শতাংশ, প্লাস্টিক পণ্য রপ্তানি ১৭ দশমিক ৩৪ শতাংশ, চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য রপ্তানি ২ দশমিক ০৫ শতাংশ, পাট ও পাটজাত পণ্য রপ্তানি ১ দশমিক ৩৫ শতাংশ এবং সিরামিক পণ্য রপ্তানি ১১ দশমিক ৪৫ শতাংশ কমেছে।

গত অর্থবছরের জুলাই-ডিসেম্বরের তুলনায় চলতি অর্থবছরের প্রথম ৬ মাসে পেট্রোলিয়াম বায়ো প্রোডাক্ট রপ্তানি আয় ৩৭৭ দশমিক ৬৯ শতাংশ বেড়েছে। এছাড়া রাবার ও রাবার পণ্য রপ্তানি ৪৪ দশমিক ৬৫ শতাংশ, ইঞ্জিনিয়ারিং পণ্য রপ্তানি ২৫ দশমিক ৭৩ শতাংশ, ফার্নিচার রপ্তানি ১৩ দশমিক ১৯ শতাংশ, কেমিক্যাল পণ্য রপ্তানি ১৩ দশমিক ১৩ শতাংশ এবং হোম টেক্সটাইল পণ্য রপ্তানি আয় ১৬ দশমিক ৬৮ শতাংশ বেড়েছে।