মেইন ম্যেনু

‘রসআলো’ নিয়ে ভারতীয় মিডিয়ায় তোলপাড়

গতকাল বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় একটি দৈনিকের সাপ্তাহিক রম্য ম্যাগাজিনে ছাপা হওয়া একটি ব্যাঙ্গচিত্র নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ আলোচনা-সমালোচনা চলছে। ভারতীয় ক্রিকেট দল ও বাংলাদেশের পেসার মুস্তাফিজুর রহমানকে নিয়ে করা ওই ব্যাঙ্গচিত্রটি ভারতীয় মিডিয়াতেও বেশ তোলপাড় সৃষ্টি করেছে।

ভারতের বিপক্ষে গত সপ্তাহে শেষ হওয়া ওয়ানডে সিরিজে বাংলাদেশের নতুন আবিস্কার পেসার মুস্তাফিজ। তার দারুণ সব ‘কাটারে’ ওই সিরিজে ধসে পড়ে ভারতের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনআপ। প্রথম দুই ওয়ানডেতে ভারতের ২০ উইকেটের ১১টিই তুলে নেন বাংলাদেশের এই তরুণ তুর্কি। ২-১ ব্যবধানে ওয়ানডে সিরিজ হেরে দেশে ফেরে ভারতীয় দল।

গতকাল জাতীয় দৈনিক ‘প্রথম আলো’র সাপ্তাহিক রম্য ম্যাগাজিন ‘রসাআলো’র প্রচ্ছদে মুস্তাফিজের ‘কাটার’ নিয়ে একটি ক্যারিকেচার ছাপা হয়। ‘সিধুকে সমবেদনা জানিয়ে পত্র’ শিরোনামের লেখাটির ছবিতে দেখা যায়, একটি দোকানের নাম ‘টাইগার স্টেশনারি’। যার সাইনবোর্ডে একটি কাটার হাতে দাঁড়িয়ে রয়েছেন মুস্তাফিজ। পাশে লেখা, ‘এখানে বাংলাদেশে প্রস্তুতকৃত মুস্তাফিজ কাটার পাওয়া যায়’। আর এর নিচেই অর্ধেক চুল ছেটে ফেলা ভারতের সাতজন ক্রিকেটার একটি ব্যানার নিয়ে দাঁড়িয়ে আছেন। ওই ব্যানারে লেখা, ‘আমরা ব্যবহার করেছি, আপনিও করুন’।

এদিকে ব্যাঙ্গচিত্রটি নিয়ে ভারতীয় মিডিয়ায় বেশ তোলপাড় শুরু হয়ে গেছে। দেশটির বেশ কয়েকটি গণমাধ্যম ওই ব্যাঙ্গচিত্রটি নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। ভারতের শীর্ষস্থানীয় সংবাদমাধ্যম ‘টাইমস অব ইন্ডিয়া’র অনলাইন সংস্করণ ‘বাংলাদেশি পত্রিকায় ভারতীয় দলকে নিয়ে ঠাট্টা’ শিরোনামে প্রতিবেদনে লিখেছে, ‘বাংলাদেশের একটি পত্রিকা ভুয়া ‘কাটার’ বিজ্ঞাপনে ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রতি অসম্মান প্রদর্শন করেছে। যেখানে অর্ধেক চুল ছেটে ফেলা অবস্থায় দাঁড়িয়ে রয়েছেন ভারতের সাতজন ক্রিকেটার।’

সংবাদমাধ্যমটি প্রতিবেদনে আরো লিখেছে, ‘ভারতের বিপক্ষে ২-১ ব্যবধানে ঐতিহাসিক ওয়ানডে সিরিজ জয় বাংলাদেশের গণমাধ্যম দারুণভাবে উদযাপন করেছে। কিন্তু ২৯ জুন প্রথম আলো নামের জাতীয় দৈনিকে যে ছবি ছাপা হয়েছে তা পুরো ব্যাপারকে বাজেভাবে উপস্থাপন করেছে।’

অর্ধেক চুল ছেটে ফেলাকে অপমানের চিহ্ন হিসেবে বিবেচনা করা হয় বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে ‘টাইমস অব ইন্ডিয়া’। এই ঘটনা দুই দেশের ক্রিকেট বোর্ডের সম্পর্কের ওপর বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে বলেও উল্লেখ করা হয়েছে।

indexqwsw

ওই ব্যাঙ্গচিত্রটি নিয়ে ভারতের আরেক সংবাদমাধ্যম ‘ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস’-এর শিরোনাম, ‘বিতর্কিত বিজ্ঞাপন দিয়ে ভারতীয় ক্রিকেটকে অপমানের চেষ্টা বাংলাদেশি পত্রিকার’।

আইবিএন লাইভ ডটকম শিরোনাম করেছে, ‘স্বনামধন্য বাংলাদেশি পত্রিকায় অরূচিকর বিজ্ঞাপন দিয়ে ভারতীয় দলকে লজ্জা দেওয়ার চেষ্টা’।