মেইন ম্যেনু

রসুনের দাম বেড়েছে কেজিতে ২০ টাকা

এক সপ্তাহের ব্যবধানে খুচরা বাজারে রসুনের দাম ২০ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। রাজধানীর বিভিন্ন বাজারে আমদানি করা মোটা রসুন কেজিতে ২২০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। গত সপ্তাহে যা বিক্রি হয়েছিল ২০০ টাকা দরে। দেশি নতুন রসুনের চাহিদা কম থাকলেও গত সপ্তাহে কেজি প্রতি ৮০ টাকা বিক্রি হওয়া রসুন আজ বিক্রি হচ্ছে ১০০ টাকায়।

তবে বাংলাদেশ ট্রেডিং করপোরেশনের (টিসিবি) মূল্য তালিকায় দেখা গেছে প্রতিকেজি আমদানি করা রসুনের দাম ১৯০ থেকে ২০০ টাকা।

বিক্রেতারা জানান, বাজারে দেশি নতুন রসুন এখনও পুরোপুরি আসেনি। যা এসেছে তা কাঁচা রসুন; এগুলোর চাহিদা কম। ফলে আমদানি করা রসুনই একমাত্র ভরসা। এ অবস্থায় চাহিদার তুলনায় সরবরাহ কম হওয়ায় দাম বেড়েছে।

তবে চাল, ডাল, তেলসহ বেশিরভাগ মুদিপণ্যের দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। রাজধানীর বিভিন্ন কাঁচাবাজার ঘুরে দেখা যায়, বেশিরভাগ সবজি বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ৫০ টাকার উপরে। মান ও আকার ভেদে প্রতি কেজি বেগুন বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৫৫ টাকায়। এছাড়া প্রতি কেজি ঝিঙ্গা ৫০ টাকা, ধুন্দল ৮০ টাকা, বরবটি ৭০ টাকা, পটল ৫০ টাকা, ঢেঁড়স ৬০ টাকা, শিম ৫০ টাকা, টমেটো ৩০ থেকে ৪০ টাকা, কচুর লতি ৫০ থেকে ৬০ টাকা, শশা ৪০ টাকা, লাউ ৪০ থেকে ৫০ টাকা, কাঁচা মরিচ ৮০ টাকা, মিষ্টি কুমড়া ৪০ টাকা, চাল কুমড়া ৪০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে।

মাছের বাজার কিছুটা স্থিতিশীল। আকার ভেদে প্রতিকেজি রুই মাছ বিক্রি হচ্ছে ১৭০ টাকা থেকে ৩৮০ টাকা, কাতল ২৩০ থেকে ৪৫০ টাকা, তেলাপিয়া প্রতি কেজি ১৩০ থেকে ১৮০ টাকা, প্রকার ভেদে চিংড়ি ৬৫০ টাকা থেকে ১০০০ টাকা এবং ইলিশ প্রতি হালি ১২০০ থেকে ১৬০০ টাকা।

এদিকে গত সপ্তাহের দামেই পাওয়া যাচ্ছে মুরগি ও হাঁসের ডিম। ফার্মের মুরগির লাল ডিম প্রতি হালি ৩২ টাকা, দেশি মুরগির ডিম ও হাঁসের ডিম প্রতি হালি ৪০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।