মেইন ম্যেনু

রাজধানীতে চলবে পাঁচ রংয়ের বাস

নগরবাসীকে আর পরিবহন হয়রানিতে পড়তে হবে না। নির্দিষ্ট স্থানে দাঁড়িয়ে যে যার গন্তব্যের বাস পাবেন ঝামেলাহীন ভাবেই। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে বিষয়টি কাল্পনিক মনে হলেও এটি বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হক।

অনেকটা চ্যালেঞ্জ নিয়েই তিনি এগুচ্ছেন এ কাজে। সেই চ্যালেঞ্জের কিছুপথ এগিয়েছেনও, এখন বাকি বাস্তবায়ন।

রাজধানীর পাঁচটি রুটে পাঁচ রংয়ের বাস চলাচল করবে। এতে বাসগুলোতে উঠতে প্রতিযোগিতা কমে আসবে। কমে আসবে বাসে ওঠার দৌড়ঝাঁপ ও দুর্ঘটনা।

রাজধানীর পাঁচ রুটে প্রায় ৩ হাজার বাস নামানোর লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছেন মেয়র আনিসুল হক। এই ৩ হাজার বাসের মধ্যে এক হাজার এসি বাস থাকবে। তবে রুট ভেদে বাসের কালার হবে। এতে খরচ হবে ১৫’শ কোটি টাকা।

প্রাথমিকভাবে বাংলাদেশ ব্যাংকের মাধ্যমে এই বাস নামানোর প্রক্রিয়ায় এগুচ্ছেন মেয়র। এরই মধ্যে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্ণর ড. আতিউর রহমানের সঙ্গে একদফা আলোচনাও সেরেছেন মেয়র।

এবিষয়ে মেয়র আনিসুল হক বলেন, রাজধানীতে পাঁচ রংয়ের বাস চলবে। ১৮০ থেকে ২০০ কোম্পানিকে পাঁচটি কোম্পানিতে নিয়ে আসাটাই বড় চ্যালেঞ্জ ছিলো, সেটা যখন পেরেছি, বাকীটাও পারবো বলে আশা করি।

তিনি বলেন, এই বাস সার্ভিস চালু করতে পারলে একদিকে যানজট কমবে, অন্যদিকে দুর্ঘটনাও কমে আসবে।

রাজধানীতে চলাচলকারী এই পাঁচ রংয়ের বাসগুলোতে থাকবে মডার্ন টিকিটিং ব্যবস্থা। এমনকি কার্ড সিস্টেমও চালু হতে পারে। তবে কোন রুটে কোন কালারের বাস চলবে সে বিষেয়ে এখনো কোনো আলোচনা হয়নি।

তবে এসবই এখন প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে। অর্থায়ন নিশ্চিত করতে পারলে এ বছরই বিশেষ এই পরিবহণ ব্যবস্থা চালু হবে।

সড়ক পরিবহন বিশেষজ্ঞ ও প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যাল (বুয়েট) পুর প্রকৌশল বিভাগের অধ্যাপক মো. শামসুল হক বলেন, এটি অবশ্যই ভাল উদ্যেগ। মাস্ট র‌্যাপিড ট্রানজিট (এমআরটিএ) চালুর আগে এই সিস্টেম চালু করতে পারলে ভালো হবে।

তিনি বলেন, এটি চালু হলে পরিবহণ খাতে শুধু শৃঙ্খলাই ফিরে আসবে না, জংশনাল প্রোডাক্টিভিটি অনেক বেড়ে যাবে। এছাড়া বাস চালকদের মধ্যে অসুস্থ প্রতিযোগিতা বন্ধ হবে। তবে খেয়াল রাখতে হবে এই ভালো উদ্যেগ যেন ভেস্তে না যায়।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ বলেন, প্রাথমিকভাবে আমাদের বাস মালিকরা একমত পোষণ করেছেন প্রক্রিয়াটির সঙ্গে। এই ব্যবস্থা চালু করলে যাত্রী উঠানোর জন্য চালকদের প্রতিযোগিতায় নামতে হবে না। যানজট যেমন কমবে তেমনি, দুর্ঘটনাও কমবে। একই সঙ্গে সড়ক থেকে পুরানো রং চটা বাস তুলে দেওয়া হবে। আমরা নতুন বাস কেনার জন্য ৫% সুদে লোন দেওয়ার প্রস্তাব করেছি, সেটা হলে অনেকেই নতুন বাস নামাবে।-বাংলানিউজ