মেইন ম্যেনু

রাজনীতিতে আগ্রহীদের বীর্যপাত বেশি হয়

রাজনীতিতে সরাসরি যুক্ত নন কিন্তু আগ্রহ আছে এমন ব্যক্তিদের বীর্যপাত অন্যদের তুলনায় বেশি হয় বলে দাবি করা হয়েছে এক গবেষণায়। যুক্তরাষ্ট্রের সিঙ্গেল মানুষদের উপর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ম্যাচ.কমের পরিচালিত ষষ্ঠ বর্ষের গবেষণা প্রতিবেদনে এমন দাবি করা হয়েছে।

গবেষণায় ১৮ থেকে ৭০ ঊর্ধ্ব বয়সী সাড়ে পাঁচ হাজার সিঙ্গেল লোকের উপর জরিপ চালায় ম্যাচ.কম।

প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জরিপে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে যেসব ব্যক্তি সরাসরি রাজনীতিতে যুক্ত নন কিন্তু এর প্রতি আগ্রহ রয়েছে তাদের যৌন জীবন অন্যদের তুলনায় ভালো। অন্যদের তুলনায় এদের ১৩ শতাংশ বেশি বীর্যপাত হয় এবং এদের ৩২ শতাংশেরই একাধিকবার বীর্যপাত হয়।

জরিপে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাশী হিলারী ক্লিনটন এবং ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকদের চাত্রিরিক কিছু পার্থ্যকও উঠে এসেছে।

সেখানে দেখা গেছে, যৌন মিলনের দৃশ্য ধারন করার ক্ষেত্রে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকরা হিলারি ক্লিনটনের সমর্থকদের চেয়ে ৯৯ শতাংশ এগিয়ে।

ট্রাম্পের সমর্থকদের মধ্যে প্রথমবার ডেটিংয়ে যৌন মিলনে এক হাজার ১০৪ শতাংশ আগ্রহী হলেও হিলারির সমর্থকরা প্রথমবার ডেটিংয়ে যৌন মিলনের ক্ষেত্রে দুই হাজার ১৩৩ শতাংশ অনাগ্রহী।

কোনো রিপাবলিকান সমর্থককের সাথে দ্বিতীয়বার ডেটিংয়ের সময় একটা দামি রেস্টুরেন্টে খেতে যাওয়ার সম্ভাবনা ১২২ শতাংশ। অপরদিকে, ডেমোক্রেট সমর্থকের সাথে দ্বিতীয় ডেটিংয়ে খেতে গিয়ে ‘সুশি’ (জাপানী খাবার) খেতে যাওয়ার সম্ভাবনা ১২৬ শতাংশ।

রাজনীতিতে যুক্ত না থেকে প্রথমবার ডেটে রাজনীতি নিয়ে কথা বললে একজন রিপাবলিক সমর্থকের সাথে দ্বিতীয়বার ডেটে যাওয়ার সম্ভাবনা ৭৫ শতাংশ যা ডেমোক্রেট সমর্থকের ক্ষেত্রে ৮০ শতাংশ বলে গবেষণায় উল্লেখ করা হয়েছে।



« (পূর্বের সংবাদ)