মেইন ম্যেনু

রাজনের হত্যার বিচার যেন সাত খুনের মতো না হয়

সিলেটে রাজন হত্যার বিচার যেন নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের মতো ঝুলে না যায় সেদিকে খেয়াল রাখার পরামর্শ দিয়েছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত। তিনি বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের মামলার অন্যতম আসামি নূর হোসেনকে এখনও দেশে ফিরিয়ে আনা যায়নি। রাজন হত্যার বেলাতেও যেন এমনটি না ঘটে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।’

শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউটে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

রাজন হত্যাকে জাতীয় বিকৃতি আখ্যা দিয়ে সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন, ‘এই ঘটনা জাতীয় মানসিক বিকৃতি। অপরাধের বিকৃত রূপ। এবিষয়ে এখনই সর্তক হতে হবে। সুচিন্তিত ও পরিকল্পিতভাবে জাতিকে এ থেকে বের করে আনতে হবে।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুর ইসলামকে জনপ্রশাসনমন্ত্রী করায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়েছে দলের এই উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য বলেন, ‘আশরাফকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে দেশের মানুষ প্রশংসার চোখে দেখছেন। এর মধ্য দিয়ে তিনি রাজনীতিতে আরেকবার প্রজ্ঞার পরিচয় দিলেন। আমার রাজনীতির জীবনে সর্বোচ্চ নির্বাহী ক্ষমতায় যারা ছিলেন তাদের মধ্যে শেখ হাসিনার মতো শক্তিশালী ও প্রজ্ঞাবান দ্বিতীয়টি দেখিনি।’

সুরঞ্জিত বলেন, ‘আশরাফকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রিত্ব দেয়ায় রাজনীতিতে আরেকটি চমক দেখলাম। তবে রাজনীতিতে চমক বা আকর্ষিক কোনো কিছু মোটেই গ্রহণযোগ্য নয়। রাজনীতি হতে হবে সুচিন্তিত। চমক বা আকর্ষিক রাজনীতি নীতিহীন। আমরা যেন আর এ ধরণের সংকটে না পড়ি।’



(পরের সংবাদ) »