মেইন ম্যেনু

রাজন হত্যা : কামরুলকে দেশে আনা হচ্ছে বিকেলে

সিলেটে শিশু সামিউল আলম রাজন হত্যা মামলার প্রধান আসামি কামরুল ইসলামকে সৌদি আরব থেকে আজ বিকেলে দেশে ফিরিয়ে আনা হচ্ছে।

পুলিশ সদর দফতের সহকারী পুলিশ মহাপরিদর্শক (এআইজি) নজরুল ইসলাম জনানা, বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে কামরুলকে নিয়ে ঢাকায় পৌঁছাবে পুলিশের একটি দল।

কামরুল ইসলামকে দেশে ফিরিয়ে আনতে সৌদি আরবের উদ্দেশে গত রোববার রাতে ঢাকা ছাড়েন পুলিশ সদর দফতরের অতিরিক্ত সুপার মাহাবুবুল করিম, সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ রহমত উল্লাহ এবং সহকারী পুলিশ কমিশনার এএফএফ নেজাম উদ্দিন পুলিশের তিন সদস্যর একটি প্রতিনিধি দল।

এর আগে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পুলিশ সদর দফতর থেকে পাঠানো এক চিঠিতে জানানো হয়েছিল, সৌদি আরব কর্তৃপক্ষ কামরুলকে বাংলাদেশ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে ফেরাতে সম্মত হয়েছে। কামরুলকে ফিরিয়ে নিতে এক পথের বিমানভাড়াসহ যাবতীয় ব্যয়ভার বহনের অনুরোধ জানিয়েছে সৌদি আরব। এ ছাড়া তাকে ফিরিয়ে নিতে বাংলাদেশ থেকে এসকর্ট পাঠাতে বলেছে সৌদি আরব। এর প্রেক্ষিতেই তিন পুলিশ কর্মকর্তা সৌদি আরব যান।

প্রসঙ্গত, গত ৮ জুলাই সিলেটের কুমারগাঁওয়ে চুরির অভিযোগ তুলে খুঁটিতে বেঁধে ১৩ বছরের শিশু রাজনকে পিটিয়ে হত্যার পর বিদেশে পালিয়ে যান কামরুল। তিনি মধ্যপ্রাচ্যের ওই দেশটিতে থাকেন।

এদিকে রাজনকে নির্যাতনের ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ার পর সারা দেশে ক্ষোভের সঞ্চার হয়। তখন প্রবাসীদের সহায়তায় কামরুলকে আটক করে সৌদি পুলিশের হাতে তুলে দেন বাংলাদেশ দূতাবাসের কর্মকর্তারা। এরপর কামরুলকে ফেরাতে ইন্টারপোলের মাধ্যমে উদ্যোগ নেয় বাংলাদেশ পুলিশ। জারি করা হয় রেড নোটিস।