মেইন ম্যেনু

রাজবাড়ীতে পদ্মার ভাঙন শুরু হুমকিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বসত বাড়ি

রাজবাড়ী সদর উপজেলার বরাট ইউনিয়নের তিনটি গ্রামে বর্ষা শুরুর সাথে সাথেই পদ্মার ভাঙন শুরু হয়েছে। এতে করে আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে স্থানীয় বাসিন্দরা।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, সদর উপজেলার লক্ষীকোল বোলতা জলকপাট (স্লুইচ গেট) অন্তারমোড় পর্যন্ত প্রায় পাঁচ কিলোমিটার এলাকায় নদী ভাঙন শুরু হয়েছে। এতে করে হুমকিতে রয়েছে প্রায় সাড়ে তিনহাজার পরিবারের বসতভিটা। এতে গুরুতর হুমকিতে রয়েছে তিনটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দুটি বাজার, কবরস্থান, শতবছরের পুরোনো স্থাপনা মিয়া বাড়ি। তবে পদ্মার ভাঙন অনেক স্থানে বেড়িবাধের পঞ্চাশগজের মধ্যে চলে এসেছে।

মঙ্গলবার সরেজমিনে দেখা যায়, পাকুরিয়ায় (লালগোলা) বস্তা দিয়ে বাধ দেওয়ার বিভিন্ন স্থান থেকে বস্তা ধসে গেছে। উড়াকান্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রক্ষার বাশের পাইলিং ভেঙে গেছে এবং বালুর বস্তা নস্ট হয়ে নদীতে চলে গেছে।

উড়াকান্দা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী হাসান ও রিপন অন্যান্য শিক্ষার্থীদের মতো আশঙ্কায় আছে। তাঁরা জানায় স্কুল নদীতে ভেঙে গেলে কোথায় লেখাপড়া করবে। সরকার যতো তাড়াতাড়ি নদী থেকে তাদের স্কুলটিকে বাচিয়ে দেয়।

বরাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী সামছুদ্দিন জানান, নদী রক্ষায় পর্যাপ্ত পদক্ষেপ না নেওয়ায় অনেক পরিবার সর্বশান্ত হয়ে গেছে। অতিসত্ত্বর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নিলে স্কুল, বাজারসহ প্রায় সাড়ে তিনহাজার পরিবারের বসত বাড়ি পদ্মায় বিলীন হয়ে যাবে।