মেইন ম্যেনু

রাজবাড়ীর দৌলতদিয়ায় ৩ কিলোমিটার জুড়ে গাড়ির সিরিয়াল

দক্ষিনাঞ্চলের ২১ জেলা থেকে মঙ্গলবার সকাল থেকে দৌলতদিয়া ঘাটে কর্মমুখী মানুষের ঢল নামতে শুরু করে। এতে গাড়ির চাপ বেড়ে গিয়ে দৌলতদিয়া ঘাট এলাকায় দুপুরের পর থেকে নদীপারের অপেক্ষায় আটকা পড়া বাস, মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকারের সাড়ি দীর্ঘ হতে থাকে।

এই জরুরী সময় দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া রুটে চলাচলকারী ১৯টি ফেরির মধ্যে ইউটিলিটি ফেরি মাধবীলতা ও রোরো (বড়) ফেরি বীরশেষ্ঠ হামিদুর রহমান বিকল হয়ে আছে। এক দিকে অতিরিক্ত যানবাহনের চাপ অপর দিকে ফেরি সংকটের কারণে দৌলতদিয়া মঙ্গলবার দুপুর নাগাদ ফেরি ঘাটের জিরো পয়েন্ট থেকে মহাসড়কের দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ এলাকা পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার জুড়ে সৃষ্টি হয় গাড়ির দীর্ঘ যানজট। ঘন্টার পর ঘন্টা সিরিয়ালে আটকে থাকা সাধারণ বাসযাত্রীরা এসময় চরম দুর্ভোগে পরেন।

অপরদিকে বাইপাস সড়কের ১ কিলোমিটার জুড়ে নদী পারের অপেক্ষায় সিরিয়ালে আটকে আছে প্রাইভেটকার ও মাইক্রোবাস। সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সেখানে বাড়ছে যানবাহনের চাপ।

আটকেপড়া দূরপাল্লার বিভিন্ন পরিবহন বাসের চালক ও সুপারভাইজাররা জানান, তারা ঘন্টার পর ঘন্টা নদী পাড়ের অপেক্ষায় মহাসড়কে সিরিয়ালে আটকে আছে। তাদের গাড়ি কখন ফেরির নাগাল পাবে তা তারা বলতে পারছেন না। এদিকে দীর্ঘ সময় সিরিয়ালে আটকে থাকায় সাধারণ যাত্রীদের অনেকেই অসুস্থ হয়ে পড়ছেন। এ সময় সবচেয়ে বেশী দুর্ভোগ পোহান নারী ও শিশু যাত্রীরা।

দৌলতদিয়া ঘাটে কর্মরত বিআইডব্লিউটিসির ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মো. সফিকুল ইসলাম জানান, বর্তমান এই নৌরুটে মোট ১৬টি ফেরি সার্বিক্ষণিক ভাবে সচল রয়েছে। তাছাড়া নদীতে প্রচুর ¯তের কারনে ফেরিগুলো ঘাটে আসতে কিছুটা সময় বেশি লাগছে।