মেইন ম্যেনু

রাজি ছিল না প্রিয়াঙ্কার পরিবার

বলিউড অভিনেত্রী এবং সাবেক মিস ওয়ার্ল্ড প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার বলিউড ক্যারিয়ার শুরু হয় ২০০৩ সালে। এরপর দীর্ঘদিনের অভিনয় জীবনে অনেক জনপ্রিয় সিনেমায় উপহার দিয়েছেন তিনি। সম্প্রতি এ বলিউড তারকা জানান, তার অভিনয়ের বিষয়টি শুরুতে ভালোভাবে নেয়নি তার রক্ষণশীল পাঞ্জাবী পরিবার।

৩২ বছর এ অভিনেত্রী জানান, পরিবারের পক্ষ থেকে তাকে বাধাও দেওয়া হয়েছিল সেই সময়।

সম্প্রতি মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠিতব্য ইন্টারন্যাশনাল ইন্ডিয়ান ফিল্ম অ্যাকাডেমি বা আইফা অ্যাওয়ার্ডের অনুষ্ঠানে প্রিয়াঙ্কা বলেন, ‘আমি একটি রক্ষণশীল পাঞ্জাবী পরিবার থেকে উঠে এসেছি। এ কারণে যখন আমি বলিউডে প্রবেশ করি তখন আমাকে অনেক বাধার সম্মুখীন হতে হয়েছে। কিন্তু পরবর্তীতে আমার বাবা-মা আমাকে সম্পূর্ণ স্বাধীনতা দেন। এবং আমার ইচ্ছে মতো কাজ করার অনুমতি দেন।’

এ সময় তিনি গত ৫ জুন মুক্তিপ্রাপ্ত দিল ধারাকনে দো সিনেমায় তার চরিত্র সম্পর্কেও কিছু কথা বলেন। তিনি জানান তার এ চরিত্রটি ভারতের বেশির ভাগ নারীর একটি প্রতীকি রূপ বহন করে।

তিনি বলেন, ‘নারীদের বাক্সে বন্দি করে রাখা হয়। আপনি কী বা কী করতে চান এটি কোনো বিষয় নয়।’

২০০০ সালে মিস ওয়ার্ল্ড উপাধি লাভ করেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। ২০০২ সালে তামিল ঠামিজান চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তার সিনেমা জগতে অভিষেক হয়। ২০০৩ সালে তিনি সানি দেওলের বিপরীতে দ্য হিরো সিনেমার মাধ্যমে বলিউডে প্রবেশ করেন। ২০০৪ সালে আন্দাজ সিনেমার জন্য তিনি সেরা নবাগতা নায়িকা হিসেবে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার লাভ করেন। ২০০৮ সালে তিনি ফ্যাশন সিনেমার জন্য সেরা অভিনেত্রী হিসেবে জাতীয় পুরস্কার লাভ করেন।