মেইন ম্যেনু

‘রাজীবকে গ্রেফতারের প্রক্রিয়া অমানবিক’

ছাত্রদল সভাপতি রাজীব আহসানকে গ্রেফতারের প্রক্রিয়াকে অমানবিক বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

মঙ্গলবার দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে তিনি এ মন্তব্য করেন।

খালেদা জিয়া ছাত্রদল সভাপতিকে গ্রেফতারে ক্ষোভ ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, ‘বিরোধী রাজনীতিকে দুর্বল করার অপপ্রয়াসে ছাত্রনেতা রাজীবকে গ্রেফতার করার কয়েক ঘণ্টা পর তাকে বহনকারী গাড়িতে মাদক পাওয়ার কথা প্রচার রাজনৈতিক কর্মীদের চরিত্রহননের একটি ঘৃণ্য প্রচারণামূলক নাটক ছাড়া আর কিছু নয়।’

তিনি বলেন, ‘রাজীবকে গ্রেফতারের দীর্ঘ সময় পর পুলিশ কার্যালয়ে বসে যে বানোয়াট তথ্য প্রচার করা হয়েছে, তা উদ্দেশ্যমূলক, মানহানিকর এবং রাজীব আহসানের মত সৎ ও আদর্শবান একজন রাজনৈতিক কর্মী সম্পর্কে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টির ষড়যন্ত্রমূলক অপচেষ্টা মাত্র।’

প্রাক্তন এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সরকারের নির্দেশে মিথ্যা প্রচারের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকেও আজ জনগণের নিন্দা আর অবিশ্বাসের প্রতিষ্ঠান হিসেবে পরিণত করা হয়েছে।’

খালেদা জিয়া বলেন, ‘একই দিন ঢাকা ও নরসিংদীতে ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হোসেনকে গ্রেফতার করার জন্য পরিচালিত পুলিশি অভিযান প্রমাণ করে ছাত্রদল সভাপতি রাজীব আহসানকেও রাজনৈতিক সিদ্ধান্তেই গ্রেফতার করা হয়েছে এবং মাদক উদ্ধারের বিষয়টি একটি ঘৃণ্য প্রচারণা ছাড়া আর কিছু নয়। একজন রাজনৈতিক কর্মীকে পবিত্র ঈদ উপলক্ষে বাবার কবর জেয়ারত ও বৃদ্ধা মায়ের সঙ্গে সাক্ষাতের সুযোগে গ্রেফতার করা অমানবিক।’

জনগণের ঐক্যবদ্ধ গণতান্ত্রিক আন্দোলনের মুখে এই অগণতান্ত্রিক অবৈধ সরকারের পতন সময়ের ব্যাপার বলে উল্লেখ করেন খালেদা জিয়া। ছাত্রদল সভাপতি রাজীব আহসানসহ মিথ্যা ও বানোয়াট অভিযোগে গ্রেফতারকৃত বিএনপি ও অন্যান্য বিরোধী দলের সকল নেতাকর্মীর নিঃশর্ত আশু মুক্তি দাবি করেন তিনি।

বিএনপি চেয়ারপারসন হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘সরকারের মনে রাখা উচিত দমন-পীড়ন করে কোনো গণবিরোধী অনির্বাচিত সরকার টিকে থাকতে পারে না, এই সরকারও পারবে না।’