মেইন ম্যেনু

রাজ্জাকের পরিবারে আনন্দ, বিশেষ মোনাজাত

মিয়ানমার সীমান্তরক্ষী বাহিনীর হাতে আটক বিজিবি নায়েক আব্দুর রাজ্জাককে ফেরত দেয়ার খবরে তার গ্রামের বাড়িতে চলছে আনন্দ। সিংড়া উপজেলার বলিয়াবাড়ি গ্রামে রাজ্জাকের পরিবারের সদস্যরা করেছে বিশেষ মোনাজাত।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত পরিবারের সদস্যরা এক মুহূর্তের জন্যই চোখ সরায়নি টেলিভিশনের পর্দা থেকে। বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে রাজ্জাককে বিজিবির কাছে হস্তান্তরের খবর টিভিতে প্রচারের সঙ্গে সঙ্গে পরিবারের সদস্য ও স্বজনরা শুকরিয়া আদায়ে বিশেষ মোনাজাত করে ।

এ সময় তারা রাজ্জাককে ফেরত আনার ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ ও সহযোগিতার জন্য সরকার ও গণমাধ্যমের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

আটদিন পর রাজ্জাককে হস্তান্তরের পর তার বাবা তোফাজ্জল হোসেন জানান, ছেলেকে ফেরত দেয়ার খবরে স্বস্তি পাচ্ছি ঠিকই। কিন্তু চোখে না দেখা পর্যন্ত কিছুতেই মনকে শান্ত করতে পারছি না।

রাজ্জাকের স্ত্রী আসমা বেগম বলেন, আমাদের একটি ছেলে সন্তান হয়েছে। অপেক্ষায় আছি কখন তার বাবা এসে ছেলেকে দেখবে, কোলে নেবে।

প্রসঙ্গত, মিয়ানমার সীমান্তে কর্মরত থাকা অবস্থায় ১৭ জুন সে দেশের বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি) তাকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। এ খবর বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যম থেকে জানার পর থেকে উদ্বেগ আর উৎকণ্ঠায় দিন কাটছিল তার পরিবারের সদস্যদের। অপরদিকে গত রোববার বেলা ১১টার দিকে রাজ্জাকের স্ত্রী আসমা বেগম একটি ফুটফুটে পুত্রসন্তান প্রসব করেন। ছেলের নাম রাখা হয় মুক্তি রানা। এছাড়াও তাদের এক ছেলে ও এক মেয়ে আছে।