মেইন ম্যেনু

রাণীনগরে যৌতুকের দাবিতে মারপিট করে গৃহবধুর মাথার চুল কর্তন ॥ স্বামী গ্রেফতার

কাজী আনিছুর রহমান, রাণীনগর (নওগাঁ) থেকে : নওগাঁর রাণীনগরে যৌতুকের দাবিতে স্বামী ও স্বজনরা মিলে জেমি আক্তার (২২) নামের এক গৃহবুধকে মারপিট করে মাথার চুল কেটে দেয়ার ঘটনা ঘটেছে। এঘটনায় সোমবার স্বামীসহ তিন জনকে আসামী করে থানায় একটি মামলা দায়ের করলে পুলিশ স্বামী টিটু (২৫) কে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।

জানা গেছে, উপজেলার সদরের পশ্চিম বালুভরা গ্রামের মো: জিন্নাহ আলীর মেয়ে জেমি আক্তারের সাথে একই গ্রামের সায়ের আলীর ছেলে মো: টিটু এর সাথে গত ৬ বছর আগে বিয়ে হয়। সেই সময় যৌতুক হিসেবে কিছু টাকা নিলেও আরো যৌতুকের দাবিতে জেমিকে নানা ভাবে মানুষিক চাপ দিতে থাকে। এরই মধ্যে তাদের সংসারে সানিয়া ও মরিয়ম নামের দুটি কন্যা সন্তান জন্ম নেয়। জেমির বাবা তার মেয়ের সংসারে সুখ-শান্তির জন্য কিছু টাকা জামাই টিটুকে দেয়। কিন্তু এর পরেও মেয়ের উপর নির্যাতন দিনদিন বেড়েই চলে। এরই ধারাবাহিকতায় চলতি মাসের ২ তারিখ রাতে জেমির স্বামী ও তার বোন রঙ্গিলা বেগম বেধর মারপিট করে বাবার বাড়ি থেকে টাকা নিয়ে আসার কথা বলে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। আহত জেমি বাবার বাড়ীতে শারীরিক ভাবে একটু সুস্থ্য হলে খবর পেয়ে টিটু ও তার আতœীয়রা গত ১৪ মে সন্ধায় শ্বশুর বাড়িতে গিয়ে আপোষ-মিমাংসার কথা বলে কৌশলে তারা জেমিকে নিয়ে আসে। এবং ওই রাতেই স্বামী ও তার স্বজনরা মিলে জেমিকে বেধর মারপিট করে মাথার চুল কেচি দিয়ে কেটে দেয়। এব্যাপারে গৃহবধু জেমি আক্তার বাদি হয়ে স্বামী টিটু,শ্বশুড় ও ননদকে আসামী করে সোমবার সকালে থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ টিটুকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

রাণীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল লতিফ খান জানান এঘটনায় জেমির স্বামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্য আসামীদের গ্রেফতাওে জ্বোর তৎপরতা অব্যাহত আছে।