মেইন ম্যেনু

রাবার চুষলে হতে পারে শিশুর ক্যানসার!

শিশুদের শান্ত রাখতে বা শিশুর মুখে যাতে কোনো রকম জীবাণু যেতে না পারে সেজন্য বাচ্চাদের মুখে চুষনি দিয়ে রাখা হয়। কিন্তিু এই চুষনি ব্যবহারের কারণে শিশুর ক্যানসার হতে পারে! শুধু তাই নয়, রাবারজাতীয় সব পণ্যই ক্যানসারের কারণ হতে পারে বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

দৈনন্দিন জীবনে আমরা রাবারের তৈরি বিভিন্ন ধরনের পণ্য ব্যবহার করি। অনেক সময় রাবারের তৈরি জিনিসপত্র ব্যবহারের পর ফেলে দেওয়া হয়। এসব ফেলে দেয়া পণ্য পুনরায় ব্যবহারের জন্য রিসাইকেল করা হয়। টায়ার থেকে প্রস্তুত এসব পণ্য আমাদের জন্য কতটা ক্ষতিকর তা কখনো ভেবে দেখি না।

রাবারজাতীয় পণ্য ব্যবহারে হুঁশিয়ার করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, এসব পণ্যে এক ধরনের কেমিকেল পাওয়া গেছে, যা ক্যানসারের কারণ হতে পারে। সম্প্রতি সংস্থাটির এক গবেষণায় এমন তথ্য উঠে এসেছে।

এতে বলা হয়েছে, সব ধরনের রাবারের পণ্য যেমন গ্লোভস, কনডম, মূত্রনিষ্কাশন যন্ত্র এবং গাড়ির টায়ারে এক ধরনের কেমিকেল রয়েছে। এ ছাড়া জুতার সুক্তলা, বায়ুশয্যা, চুল বাঁধার ব্যান্ড (ইলাস্টিক ব্যান্ড), শিশুদের চুষনি, সাঁতার কাটার টুপি ও চশমাতেও ক্ষতিকর কেমিকেল পাওয়া গেছে।

টায়ার রিসাইকেল করে উৎপাদিত এসব পণ্যে এক ধরনের বিষযুক্ত কেমিকেল রয়েছে, যা ক্যানসারের কারণ হতে পারে।

গবেষণায় বলা হয়েছে, অনাকাঙ্ক্ষিত গর্ভধারণ বা যৌন সংক্রমণ থেকে বাঁচার জন্য অনেকেই কনডম ব্যবহার করে থাকেন। কিন্তু অনেকেই হয়তো জানেন না কনডমেরও বেশ কিছু ক্ষতিকর দিক আছে। বেশির ভাগ কনডম ল্যাটেক্স নামক এক ধরনের রাবার দিয়ে তৈরি হয়। এই ল্যাটেক্স রাবার গাছ থেকে পাওয়া যায়।

মেয়েরা চুল বাঁধার জন্য যে রাবার ব্যান্ড ব্যবহার করে তাতেও এই কেমিকেল পাওয়া গেছে।