মেইন ম্যেনু

রাবিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী :

‘হত্যাকারীদের গ্রেফতারের দ্বারপ্রান্তে পুলিশ’

ইয়াজিম ইসলাম পলাশ, রাবি প্রতিনিধি : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘রেজাউল করিম সিদ্দিকী হত্যাকান্ডে অপরাধীদের গ্রেফতারের পুলিশ দ্বারপ্রান্তে এসে পৌঁছে গেছে। তদন্তের স্বার্থে সবকিছু এখন আমরা বলতে চাচ্ছি না। খুবই শীঘ্রই এ হত্যাকারীদের আপনাদের সামনে তুলে ধরবো এবং বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করাবো।

শনিবার দুপুরে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) অধ্যাপক রেজাউল করিম সিদ্দিকী হত্যার প্রতিবাদ ও বিচার দাবিতে কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তনে শিক্ষক-ছাত্র-সুধী সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, ‘বাংলার মানুষ জঙ্গিবাদ পছন্দ করে না। এই রাজশাহীকে জঙ্গিবাদের আস্তানা গড়তে দিব না। বিশ্ববিদ্যালয়সহ গোটা রাজশাহীতে দৃশ্যমান টহলের ব্যবস্থা করে দিব। যাতে আপনারা নিশ্চিত হতে পারেন পুলিশ প্রশাসন আপনাদের পাশে আছে।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নিহত শিক্ষকের মেয়ে শতভীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘আমাকে প্রায়ই নিহত পরিবারের মুখোমুখি হতে হয়। তিনি (শতভী) যেভাবে আবেদন-নিবেদন করলেন, তাকে অভয় দেয়ার ভাষা আমার নেই। শুধু এটুকুই বলতে চাই আপনি অবশ্যয় আপনার বাবা হত্যার বিচার দেখতে পাবেন। আপনার সামনে খুনিদের বের করে শাস্তি নিশ্চিত করবই।’

শিক্ষক হত্যার আন্দোলনের সঙ্গে সুর মিলিয়ে আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, সারা দেশ, সারা জাতি একটি কথায় বলে, আমরা এসব হত্যাকারীদের পক্ষে নই। আমরা অবশ্যই এদের গ্রেফতার করে জনগণের সামনে তুলে ধরবো। আমরা বিচারের কাছাকাছি এসে গেছি। আপনাদের কাছে বিশেষ অনুরোধ করবো, আপনারা আন্দোলন তুলে নিয়ে ক্লাসে ফিরে যান। বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে অনুরোধ, শিক্ষক সমিতির কাছে অনুরোধ ও শিক্ষার্থীদের কাছে অনুরোধ, আপনারা নিশ্চিন্তে ক্লাসে ফিরে যান। আমরা আপনাদের সঙ্গে আছি। অবশ্যই এ হত্যাকারীদের বিচার করবো।

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, ‘দেশের সবচেয়ে বড় পরিবার হলো শিক্ষা পরিবার। সেই পরিবারের অভিভাবক শিক্ষক হত্যার বিচার না হলে শিক্ষার পরিবেশ স্বাভাবিক রাখা সম্ভব নয়। শিক্ষা পরিবারের একজন সদস্য হিসেবে আমি জড়িতদের গ্রেফতার এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চেয়ে সাতটি দাবি রাখতে চাই। আর এ দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত আমরা আশ্বস্ত হতে পারছি না।’

সমাবেশে পুলিশের মহাপরিদর্শক এ কে এম শহীদুল হক বলেন, অপরাধীদের আমরা কবে নাগাদ ধরতে পারব তা দিন, ক্ষণ, টাইম উল্লেখ করে বলা সম্ভব নয়। তবে আপনাদের বলতে চাই, আমাদের তদন্তের যথেষ্ট অগ্রগতি হয়েছে। আমরা ঘটনার একেবারে কাছাকাছি চলে এসেছি। আমি আবার বলতেছি, হত্যাকারীদের আদালতে তুলে দিতে সক্ষম হব।

gfds

রাবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. শহীদুল্লাহর সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের মহাসচিব এ এস এম মাকসুদ কামাল, সভাপতি প্রফেসর ড. ফরিদ উদ্দিন আহমেদ, রাবি উপাচার্য অধ্যাপক মুহম্মদ মিজানউদ্দিন, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী সারওয়ার জাহান।

গত ২৩ এপ্রিল রাজশাহীর শালবাগান এলাকায় নিজ বাড়ি থেকে প্রায় ১০০ গজ দূরে অধ্যাপক ড. এ এফ এম রেজাউল করিম সিদ্দিকীকে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এরপর থেকে বিচার দাবিতে আন্দোলন করে আসছে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।