মেইন ম্যেনু

রামেকে ৬টি ডায়ালাইসিস মেশিন সংযোজন

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের আধুনিক ও উন্নত চিকিৎসা দিতে সক্ষম ৬টি ডায়ালাইসিস মেশিন সংযুক্ত করা হয়েছে। এ ৬টি ডায়ালাইসিস মেশিন সংযুক্ত করা হয় কিডনি বিভাগে। এতে ব্যয় হয়েছে আনুমানিক ৮০ লাখ টাকা।

আগামী ১০ থেকে ১৫ দিনের মধ্যে হাসপাতালের এ নতুন ডায়ালাইসিস সেন্টারটির কার্যক্রম চালু করা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছন কতৃপক্ষ।

৬টির মধ্যে আমেরিকার তৈরি ৩টি ডায়ালাইসিস মেশিন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কিনেছে এবং জাপানের তৈরি বাকি ৩টি মেশিন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে আবেদনের মাধ্যমে আনা হয়েছে।

নতুন মেশিনগুলো সংযোজনের ফলে রাজশাহী অঞ্চলের কিডনি রোগীদের আরও উন্নতমানের সেবা প্রদান করা সম্ভব বলে মনে করছে রামেক হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

রামেক হাসপাতাল পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল একেএম নাসির উদ্দিন জানান, হাসপাতালের সিটি স্ক্যান মেশিন ৪ বছর ধরে অকেজো। আগামী ৩১ জুলাই নতুন সিটি স্ক্যান মেশিন বাংলাদেশে এসে পৌঁছাবে। এর আনুষাঙ্গিক যন্ত্রপাতি চলে এসেছে এবং আগামী আগষ্ট মাসে এর কার্যক্রম শুরু করা সম্ভব হবে। মেশিনটি স্থাপন করতে দ্রুত কাজ এগিয়ে চলেছে। জেনারেটর ও পাওয়ার সাব স্টেশনের কাজও প্রায় শেষ।

এ মেশিনটি উন্নতমানের, যা ৬৪টি এঙ্গেল থেকে ছবি তুলতে সক্ষম। আগের মেশিনটি থেকে মাত্র একটি এঙ্গেল থেকে ছবি তোলা যেত। স্ক্যান মেশিনটি ইউএস’র ফিলিপস কোম্পানির। এর ব্যয় আনুমানিক ১২ কোটি টাকা, জানান তিনি।