মেইন ম্যেনু

রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন করবেন মুজাহিদ

মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা আলী আহসান মোহাম্মাদ মুজাহিদ রাষ্ট্রপতির কাছে লিখিত আবেদন করবেন। তবে সেটি প্রাণভিক্ষার আবেদন কি না তা পরিষ্কার নয়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে মুজাহিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে তার পুত্র আলী আহমেদ মাবরুর সাংবাদিকদের জানান, আইনজীবীদের সঙ্গে সাক্ষাতের বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন বাবা। তিনি বলেছেন, রাষ্ট্রপতি একজন বিজ্ঞ ব্যক্তি, তিনি আইন ভাল বোঝেন। আইনজীবীদের সঙ্গে পরামর্শ করে একটি ব্যাপারে লিখিত আবেদন করবেন।

তবে সেটি মার্সি পিটিশন কি না জানতে চাইলে মাবরুর বলেন, ‘এটি বাবাই ভাল জানেন। আইনজীবীদের সঙ্গে পরামর্শ করে লিখিত আবেদন করবেন তিনি।’

মাবরুর বলেন, ‘নিয়মিত সাক্ষাৎকারের অংশ হিসেবে বাবার সঙ্গে দেখা করেছি। বাবা বলেছেন, আমাকে যে কারণে আদালত ফাঁসির আদেশ দিয়েছে তা সম্পূর্ণ নীলনকশার অংশ।’

তিনি আরো বলেন, ‘আপিল বিভাগের রায় খারিজের কপি এখনো তার কাছে পৌঁছেনি। আমাদের কাছেই তিনি শুনেছেন আপিল বিভাগে রিভিউ আবেদন খারিজ হয়েছে। রায় খারিজের কথা শুনে তিনি বলেছেন, আমি সম্পূর্ণ নির্দোষ।’

মুজাহিদের পরিবারের সদস্যরা বৃহস্পতিবার দুপুর ১টা ৪০মিনিটের দিকে কারাগারে প্রবেশ করেন। সাক্ষাৎ শেষে বেরিয়ে আসেন ২টা ৪০ মিনিটের দিকে। এর আগে মুজাহিদের সঙ্গে সাক্ষাতের অনুমতি চেয়ে কারা কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করে তার পরিবার।

সাক্ষাৎ করতে কারাগারে মুজাহিদের স্ত্রী, ছেলে, মেয়ে ও মেয়ে জামাইসহ ১২ জন গেলেও সাতজনকে সাক্ষাৎ করতে দেওয়া হয়।