মেইন ম্যেনু

রাষ্ট্রপতি দেশে ফিরলেই রায় কার্যকর

রাষ্ট্রপতি অ্যাডভোকেট আব্দুল হামিদ দেশে ফিরলেই মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা মীর কাসেম আলীর রায় কার্যকর হবে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক।

সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াত নেতা মীর কাসেম আলীর সাজা বহাল রাখার প্রেক্ষিতে তিনি এমন প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন।

রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে মন্ত্রী বলেন, এই রায় গণমানুষকে সন্তুষ্ট করেছে। দেশের মানুষ এমন রায়ের জন্যই অপেক্ষা করছিল। টাকার জোরে আইনকে প্রভাবিত করা যায় না, তা আবারও প্রমাণ হলো। অপরাধী মীর কাসেম আলীকে রক্ষা করতে দেশ-বিদেশের অনেকেই ষড়যন্ত্র করে আসছিল। কোনো ষড়যন্ত্রই ধোপে টেকেনি।

বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার দৃঢ়তার কারণেই এই বিচার সম্ভব হচ্ছে উল্লেখ করে আনিসুল হক বলেন, আমরা ৪৫ বছর ধরে জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করার অপেক্ষায় ছিলাম। বঙ্গবন্ধু কন্যা ক্ষমতায় এসেছেন বলেই, এই অপেক্ষার অবসান ঘটছে। যুদ্ধাপরাধের বিচারের মধ্য দিয়ে দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা হচ্ছে।

রায় কার্যকরের ব্যাপারে তিনি বলেন, রাষ্ট্রপতি চিকিৎসার জন্য যুক্তরাজ্যে রয়েছেন। তিনি দেশে ফিরলেই এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। যদি আসামির পক্ষে প্রাণ ভিক্ষা চাওয়া হয়, তাহলে রাষ্ট্রপতির বিবেচনা অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ। আর যদি প্রাণ ভিক্ষা না চাওয়া হয়, তা হলে আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করেই ফাঁসি কার্যকর করা হবে।